ফাইল জীপ এবং আনজিপ করবেন যে উপায়ে

ফাইল জীপ এবং আনজিপ পদ্ধতি ব্যবহার করে কম জায়গায় বড় ফাইল রাখা যায়। ফলে ডিভাইসের মেমরি খরচ কম হয়। আগে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সফটওয়্যার ব্যবহার করা হলেও এখন সব অপারেটিং সিস্টেমেই বিল্ট-ইন ফাইল জিপ সুবিধা রয়েছে। জিপ করার পরে, ফাইলের নামের শেষে ডটজিপ যোগ করা হয়। আসুন দেখি কিভাবে কম্পিউটার এবং ফোনে ফাইল জিপ এবং আনজিপ করা যায়-

ফাইল জীপ এবং আনজিপ
ফাইল জীপ এবং আনজিপ

উইন্ডোজে ফাইল জীপ এবং আনজিপ করার নিয়ম

আপনি যে ফাইলগুলোকে জিপ করতে চান, সেই ফাইলগুলো প্রথমে ফাইল এক্সপ্লোরারের মাধ্যমে সিলেক্ট করতে হবে। আপনি চাইলে শিফট কী চেপে একসঙ্গে একাধিক ফাইল নির্বাচন করতে পারবেন। এবার নির্বাচিত ফাইলগুলোর ওপর মাউসের কারসর রেখে মাউসের ডান ক্লিক বাটনে ক্লিক করে কম্প্রেস টু জিপ ফাইল অপশন সিলেক্ট করলেই ফাইল জিপ হয়ে যাবে।

আনজিপ করতে চাইলে ফাইল এক্সপ্লোরার থেকে কম্প্রেস ফাইলগুলোতে একসঙ্গে দুবার ক্লিক করলে ফাইলগুলো আনজিপ হয়ে যাবে। এ ছাড়া কম্প্রেস ফোল্ডার সিলেক্ট করে মাউসের রাইট বাটন ক্লিক করে এক্সট্রাক্ট অল বাটনে ক্লিক করেও ফাইল আনজিপ হয়ে যাবে।

আরো পড়ুনঃ কম্পিউটার ভাইরাস কি

অ্যান্ড্রয়েড ফোনে ফাইল জিপ ও আনজিপ করার নিয়ম

অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমের মাধ্যমে চলা ফোনে ফাইল জিপ ও আনজিপ করত হলে জেড আর্কাইভার বা উইনজিপ অ্যাপ ব্যবহার করতে হবে। এক সাথে একাধিক ফাইল জিপ করার জন্য মাই ফাইলস অপশনে যেতে হবে। এরপর যে ফাইলগুলোকে জিপ করতে চাই সেই ফাইলগুলো সিলেক্ট করে ডান পাশের নিচের অংশে থাকা তিনটি ডট অপশন চাপ দিতে হবে। এরপর কম্প্রেস অপশনে ক্লিক করে ফাইলের নাম টাইপ করে দিলেই ফাইলটি কম্প্রেস হয়ে যাবে।

ফোনের মাধ্যমে ফাইল আনজিপ করতে চাইলে যে ফাইলটি আনজিপ করতে হবে, সেটি সিলেক্ট করে এক্সট্র্যাক্ট বাটনে ক্লিক করলেই একটি পপআপ মেন্যু চালু হবে। এখানে আনজিপ করা ফাইলের নাম বা তালিকা প্রদর্শিত হবে। এরপর কাঙ্ক্ষিত অপশন সিলেক্ট করে ডান বা ওকে বাটনে ক্লিক করলেই ফাইল আনজিপ হয়ে যাবে।

আরো পড়ুনঃ গুগল নিউজে

Leave a Comment