সার্চ ইঞ্জিন বলতে কি বুঝায়? সার্চ ইঞ্জিন এর কাজ কি

আপনি কি জানেন, সার্চ ইঞ্জিন বলতে কি বুঝায়? ওয়েব জগতের একটি গুরুত্বপূর্ণ আবিষ্কার হলো সার্চ ইঞ্জিন। সার্চ ইঞ্জিন ব্যতীত ইন্টারনেট ব্রাউজিং এর কথা ভাবা যায় না। যদি সার্চ ইঞ্জিন না থাকত ইন্টারনেট এত বেশি শক্তিশালী হতে পারত না। গুগল, ইয়াহু, বিং ইত্যাদি সার্চ ইঞ্জিনসমূহ আপনাকে নির্দিষ্ট তথ্য দ্রুত খুজে পেতে সাহায্য করে।

সার্চ ইঞ্জিন কি সার্চ সার্চ ইঞ্জিন কত প্রকার ও কি কি
সার্চ ইঞ্জিন কি সার্চ সার্চ ইঞ্জিন কত প্রকার ও কি কি

সার্চ ইঞ্জিন বলতে কি বুঝায়? সার্চ ইঞ্জিন কিভাবে কাজ করে? সার্চ ইঞ্জিন কত প্রকার ও কি কি? বিশ্বের  গুরুত্বপূর্ণ  ৫টি সার্চ ইঞ্জিন  সম্পর্কে ধারনা 

সার্চ ইঞ্জিন বলতে কি বুঝায়? 

সার্চ ইঞ্জিন মূলত একটি প্রোগ্রাম যা তথ্য জমা করে এবং প্রয়োজনের সময় সেই তথ্য অনুসন্ধানকারীকে প্রদান করে। সার্চ ইঞ্জিন একটি প্রোগ্রামের মাধ্যমে চালু হয় এবং সার্চ করা তখ্য খুজে বেড়ায়। কোন তথ্যের জন্য সার্চ করলে এটি নিজের মধ্যে জমা করে রাখা কোটি কোটি ওয়েব পেইজগুলো থেকে বাছাই করে আপনার প্রয়োজনীয় তথ্যটি খুঁজে বের করে দিয়ে থাকে। এটি মাকড়সার জালের ন্যায় পুরো নেট দুনিয়ায় নিজের জাল ছড়িয়ে রেখে তথ্য সংগ্রহের করে অনুসন্ধানকারীকে প্রদান করে।

সার্চ ইঞ্জিন এর কাজ কি?

সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশনের জন্য সার্চ ইঞ্জিন এর কাজ কি তা জানা  অত্যন্ত গুরুত্বপুর্ণ বিষয়। সাধারণতঃ সার্চ ইঞ্জিন এর কাজ শুরু হয় ক্রলিং এর মাধ্যমে। তারপর ইনডেক্সিং এর মাধ্যমে কন্টেন্টগুলো বিশাল আকারের ডাটাবেজে সংরক্ষন করে রাখা হয়। তারপর সর্বশেষে ব্যবহারকারীর অনুসন্ধান এর উপর ভিত্তি করে ফলাফল প্রদর্শন করা হয়। 

ক্রলিংঃ সার্চ ইঞ্জিন একটি স্পাইডার বা ওয়েব ক্রলার পাঠিয়ে সমস্ত যতটা সম্ভব তথ্য সংগ্রহ করে লাইভ ওয়েবসাইট থেকে। কোন ওয়েবসাইটে যখনই নতুন কোন তথ্য যুক্ত করা হয় অথবা পুরনো কোন তথ্য সংশোধন করে আফডেট করা হয়, তখনই সার্চ ইঞ্জিন বট বা ওয়েব ক্রলার সেখানে হাজির হয়ে নতুন তথ্যগুলো সংগ্রহ করে। 

ইন্ডেক্সিংঃ  সার্চ ইঞ্জিন ইনডেক্সারের মাধ্যমে সংগ্রহ করে রাখা তথ্যগুলোকে পড়ে সেগুলো স্তরে স্তরে জমা রাখে। আবার অনেক সময়  জমাকৃত তথ্য থেকে অনেক তথ্যও মুছেও দেয়। এছাড়াও,  কোন লেখা ডুপ্লিকেট হলে অথবা মান-সন্মত না হলে কিংবা ব্রোকেন ইউআরএল হলে ওই সকল তথ্য সার্চ ইঞ্জিনের তথ্য ভান্ডার থেকে মুছে ফেলা হয় ।

ফলাফল প্রদর্শনঃ  ডাটাবেজে জমা করে রাখা সব তথ্য থেকে ডুপ্লিকেট তথ্য মুছে ফেলে  এবং অর্থপূর্ণ আর দরকারী সব  তথ্যগুলোকে আলাদা করে রাখার জন্য সার্চ ইঞ্জিন এর রয়েছে আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ ফিচার যার নাম হলো প্রোপার্টি অ্যালগোরিদম। যার সাহায্যেই মূলতঃ আমরা সার্চ করার পর সঠিক, যুক্তিসঙ্গত আর উপকারি ফলাফলগুলো পেয়ে থাকি।

 সার্চ ইঞ্জিন কত প্রকার ও কি কি?

কার্যপ্রনালী আর অ্যালগোরিদমের উপর ভিত্তি করে সার্চ ইঞ্জিনকে সাধারণতঃ তিনটি ভাগে ভাগ করা যায়। সেগুলো হলোঃ

(১)    প্রাইমারি সার্চ ইঞ্জিনঃ    সচরাচর আমরা যে সার্চ ইঞ্জিন গুলো ব্যবহার করি, যেমন গুগল, বিং, ইয়াহু ইত্যাদি। এগুলোই মূলতঃ প্রাইমারি সার্চ ইঞ্জিন।

(২)  সেকেন্ডারি সার্চ ইঞ্জিনঃ  সেকেন্ডারি সার্চ ইঞ্জিন মূলতঃ ডিরেক্টরি, যেমন এমএসএন, স্ন্যাপ, হটবট, ইত্যাদি। এবং

(৩)   টার্গেটেড সার্চ ইঞ্জিনঃ টার্গেটেড সার্চ ইঞ্জিন হলো সেই সকল সফট্‌ওয়্যার যেগুলো শুধুমাত্র কোন একটি নির্দিষ্ট কন্টেন্ট খোঁজার কাজে ব্যবহার করা হয়। যেমনঃ এওএল সার্চ, লাইকস, অল্টা বিস্তা, ইত্যাদি।

অসংখ্য সার্চ ইঞ্জিনের মধ্যে আমরা চেষ্টা করেছি খুঁজে বের করতে সেরা ৫টি সার্চ ইঞ্জিন।

১. গুগল: গুগল বিশ্বের সেরা এবং সবচেয়ে জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন।ওয়েব ডেভেলপার, ডিজাইনার এসইওবিশেষজ্ঞ থেকে শুরু করে সাধারণ ব্যবহারকারী পর্যন্ত গুগল ছাড়া কল্পনা করা যায় না । ফোর্বসের হিসাব অনুযায়ী গুগল প্রতি সেকেন্ডে গড়ে ৪০ হাজার অনুসন্ধানের জবাব বের করে- যার মানে প্রতিদিন সাড়ে তিন বিলিয়ন অনুসন্ধান। 

২. ইয়াহু:    ইয়াহু পৃথিবীর সর্ব প্রথম জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন যার যাত্রা শুরু হয় ১৯৯৪ সালে। প্রথমে এটি ডিরেক্টরি সাবমিশন ওয়েবসাইট হিসাবে কাজ শুরু করলেও তা পরবর্তীতে সার্চ ইঞ্জিনে রুপান্তরিত  হয়।

৩. বিং:     সার্চের ফলাফল  অত্যন্ত নিখুত এবং গ্রহনযোগ্য উত্তরের জন্য বিং অনন্য। এটি মাইক্রোসফট কর্তৃক ডেভেলপ করা একটি সার্চ ইঞ্জিন যা প্রতিষ্ঠিত হয় ২০০৯ সালে ।  মাইক্রোসফটের ওয়েব ব্রাউজারের ডিফল্ট সার্চ ইঞ্জিন হলো বিং ।

৪. আস্ক ডট কম:     মূলতঃ আস্ক ডট কম ওয়েবে উত্তরদাতা বা পরামর্শ দাতা হিসেবে পরিচিত। যার পুরো নাম আস্ক জেভিস।  ১৯৯৫  সালে গ্যারেট গ্রুইনার এবং ডেভিড ওয়ার্থেন দ্বারা এই সার্চ ইঞ্জিনটি প্রতিষ্ঠা লাভ করেছিল। বিভিন্ন ওয়েব প্রশ্নের সরাসরি উত্তরের জন্য আস্ক ডট কম অনন্য।

৫.ডাকডাকগো:     ডাকডাকগো ডট কম মূলতঃ বিভিন্ন ক্রাউড সোর্স যেমন উইকিপিডিয়া ইত্যাদি থেকে বিভিন্ন তথ্য সংগ্রহ করে এবং তা ব্যবহারকারীকে তা প্রদর্শন করে। ইতোমধ্যে অনলাইন মার্কেটারদের কাছে এই সার্চ ইঞ্জিনটি জনপ্রিয়তা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে।

পরিশেষে

সার্চ ইঞ্জিন শব্দটির সাথে পরিচয় নেই এমন লোক বর্তমানে পাওয়া দুস্কর। একটা  সময় ছিল আমরা কোনো কিছু জানা বা খোজার জন্য আমাদের আশে পাশে থাকা বিভিন্ন লোকদের কাছে জিজ্ঞাসা করতাম। কিন্তু সময় বদলেছে বর্তমান ডিজিটাল যুগে আমাদের কোন কিছু জানার প্রয়োজন হলে আমরা অন্য কাউকে জিজ্ঞাসা করি না। সরাসরি মোবাইল বা ল্যাপটপে বসে সার্চ ইঞ্জিনে সার্চ করে উত্তর পেয়ে যায়। শুধু তাই নয় সার্চ ইঞ্জিন এর মাধ্যমে কোন ওয়েব এড্রেস না জানলেও খুব সহজে আমাদের প্রয়োজনীয় তথ্য বা ওয়েবসাইট খুজে পেয়ে যায়। তাই ডিজিটাল যুগে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের কাছে  সার্চ ইঞ্জিন এর গুরুত্ব আপরিসীম। 

আরও পড়ুনঃ এসইও কি? এসইও কেন করা হয়?

Leave a Comment