নগদ একাউন্ট দেখার নিয়ম এবং বিস্তারিত পদ্ধতি

নগদ বাংলাদেশ সরকারের ডাক বিভাগের ডিজিটাল লেনদেন এর একটি মাধ্যম। নগদ একাউন্ট খুললে নগদ একাউন্ট দেখার নিয়ম জানতে হয়। নয়তো, আমরা আমাদের নগদ একাউন্ট চেক করে আমাদের একাউন্টে কত টাকা ব্যালেন্স আছে সেটি জানতে পারবো না। এজন্য আমাদের নগদ একাউন্ট কিভাবে চেক করে সেটা জানতে হবে। আপনি যদি নগদ এর একজন নতুন গ্রাহক হয়ে থাকেন, তবে এই পোস্ট থেকে নগদ একাউন্ট চেক করার কোড এবং কিভাবে নগদ একাউন্ট দেখতে হয় সে সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবেন। তো চলুন শুরু করা যাক। 

নগদ আমাদের দেশের সরকারী একটি মোবাইল ব্যাংকিং সেবা। নগদ মোবাইল ব্যাংকিং সেবা এর দিকে একটু নতুন হলেও অনেক কম সময়ে অনেক বেশি গ্রাহক টানতে পেরেছে। নগদে রয়েছে বিভিন্ন ধরণের অফার। আমরা সহজেই নগদ দিয়ে দেশের যেকোনো প্রান্তে অনেক কম খরতে টাকা পাঠাতে পারি। অর্থাৎ, নগদ এ ক্যাশ আউট চার্জ অনেক কম। এছাড়া, নগদ অ্যাপে রয়েছে সেন্ড মানি একদম ফ্রি। তাই, আপনি যদি কাউকে টাকা পাঠাতে চান, তবে কোনো প্রকার চার্জ দিতে হবে না। তাছাড়া, নগদ অ্যাপ দিয়ে আপনি বিভিন্ন ধরণের ক্যাশব্যাক অফার নিতে পারবেন।

আপনি যদি একজন নতুন নগদ গ্রাহক হয়ে থাকেন, তবে নগদ একাউন্ট দেখার নিয়ম জেনে রাখতে হবে। নয়তো, আপনার সদ্য খোলা নগদ একাউন্ট দিয়ে লেনদেন করতে পারবেন না। তো চলুন, দেখে নেয়া যাক নগদ একাউন্ট দেখার কোড এবং নগদ একাউন্ট টাকা দেখার নিয়ম

নগদ একাউন্ট দেখার নিয়ম

নগদ একাউন্ট দেখার নিয়ম
নগদ একাউন্ট দেখার নিয়ম

নগদ একাউন্ট দেখার ২টি নিয়ম রয়েছে। আপনি যেকোনো একটি নিয়ম অনুসরণ করলেই আপনার নগদ একাউন্ট দেখতে পারবেন এবং সেই একাউন্ট ব্যবহার করে সেন্ড মানি, মোবাইল রিচার্জ, পে বিল, পেমেন্ট সহ সকল লেনদেন করতে পারবেন। এই পোস্টে আমি আপনাদের সাথে দুইটি নিয়ম নিয়েই আলোচনা করবো। নগদ একাউন্ট দেখার নিয়ম ২টি নিচে দেয়া হলো : 

  • ইউএসএসডি কোড ডায়াল করে
  • নগদ অ্যাপ দিয়ে

তো চলুন, এই নিয়মগুলো নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা যাক। আপনার কাছে যদি একটি বাটন মোবাইল থাকে, তবে আপনি ইউএসএসডি কোড ডায়াল করার মাদ্ধমটি অনুসরণ করে সহজেই আপনার নগদ একাউন্ট চেক করতে পারবেন। স্মার্টফোন দিয়ে নগদ অ্যাপ ব্যবহার করে কিংবা ইউএসএসডি কোড ডায়াল উভয় করেই আপনার নগদ একাউন্ট এর ব্যালান্স চেক করতে পারবেন। 

আরো পড়ুনঃ নগদ একাউন্ট কিভাবে খুলতে হয় [year]

নগদ একাউন্ট দেখার কোড

নগদ একাউন্ট দেখার কোড দিয়ে আপনি সহজেই আপনার নগদ একাউন্ট চেক করতে পারবেন। এজন্য আপনার কাছে যদি একটি বাটন মোবাইল কিংবা এন্ড্রয়েড মোবাইল থাকে, অথবা আইফোন, সকল মোবাইল দিয়েই ইউএসএসডি কোড ডায়াল করে আপনার নগদ একাউন্ট দেখতে পারবেন। নগদ একাউন্ট দেখার কোড হচ্ছে *167# । 

আপনি যদি নগদ একাউন্ট দেখার কোড দিয়ে আপনার নগদ একাউন্টের ব্যালান্স চেক করতে চান, তবে নিচে দেখানো ধাপগুলো অনুসরণ করুন।

  • প্রথমেই আপনার মোবাইলের ডায়াল প্যাডে গিয়ে ডায়াল করবেন *167# কোডটি।
  • এরপর, একটি ফ্ল্যাশ ম্যাসেজ আসবে, এখানে 7 চেপে সেন্ড করবেন। 
  • এখন আবার 1 চেপে আবারও সেন্ড করবেন।
  • এ ধাপে, আপনার নগদ একাউন্ট খোলার সময় যে পিন নাম্বার দিয়েছিলেন, সেটি দিবেন। তাহলেই আপনার একাউন্ট এর ব্যালান্স দেখতে পারবেন।

উপরোক্ত নিয়ম অনুসরণ করলে আপনি সহজেই আপনার নগদ একাউন্ট চেক করতে পারবেন। এটাই ছিলো কোড ডায়াল করে নগদ একাউন্ট দেখার নিয়ম। এবারে চলুন, নগদ অ্যাপ দিয়ে নগদ একাউন্ট দেখার নিয়ম দেখে নেয়া যাক।

নগদ অ্যাপ দিয়ে নগদ একাউন্ট দেখার নিয়ম

maxresdefault

ইতোমধ্যে আমি নগদ টাকা দেখার নিয়ম নিয়ে একটি উপায় আপনাদের সাথে আলোচনা করেছি। এখন আপনাদের সাথে শেয়ার করবো, কিভাবে নগদ অ্যাপ দিয়ে নগদ একাউন্ট দেখবেন এবং অ্যাপ দিয়েই সব ধরণের লেনদেন করবেন। এজন্য নিচের ধাপগুলো অনুসরণ করুন।

অ্যাপের মাধ্যমে নগদ একাউন্ট দেখার উপায় – 

  • প্রথমেই আপনার মোবাইলের প্লে স্টোর কিংবা অ্যাপ স্টোর থেকে নগদ অ্যাপ ইন্সটল করে নিন।
  • এরপর, নগদ অ্যাপ ওপেন করুন।
  • এখানে আপনার নগদ একাউন্ট এর নাম্বার দিয়ে পরবর্তী ধাপে যাবেন।
  • তারপর, আপনার নগদ একাউন্ট এর পিন নাম্বার দিবেন।
  • এখন, আপনার সিমে একটি কোড আসবে, সেটি দিলে আপনার নগদ একাউন্টে লগইন হয়ে যাবে।
  • এখন এখানে ব্যালান্স জানতে ট্যাপ করুন এ ক্লিক করলে আপনার একাউন্টের ব্যালান্স দেখতে পারবেন।

এই ছিলো নগদ অ্যাপ দিয়ে নগদ একাউন্ট দেখার নিয়ম। এভাবে করে নগদ অ্যাপ ব্যবহার করে আপনি যেমন আপনার নগদ একাউন্টে কত টাকা আছে সেটি চেক করতে পারবেন, ঠিক তেমনি এই অ্যাপ দিয়েই যেকোনো লেনদেন করতে পারবেন নগদ এর মাধ্যমে। নগদ অ্যাপ দিয়ে সেন্ড মানি চার্জ একদম ফ্রি। নগদ অ্যাপ দিয়ে ক্যাশ আউট চার্জ অনেক কম। আরও রয়েছে বিভিন্ন ধরণের ক্যাশব্যাক অফার। এছাড়াও, আপনি নগদ অ্যাপ দিয়ে পে বিল, পেমেন্ট, স্কুল-কলেজের বিল, গ্যাস বিল পে করতে পারবেন অনেক সহজেই।

আরো পড়ুনঃ ঘরে বসে বিকাশ একাউন্ট বন্ধ করার নিয়ম [year]

নগদে উপবৃত্তির টাকা দেখার নিয়ম

সরকার থেকে স্কুল-কলেজের অনেক শিক্ষার্থীকে উপবৃত্তি দিয়েছে নগদ এর মাধ্যমে। অনেকেই তো এজন্য নতুন নগদ একাউন্ট খুলেছে। আপনি যদি নগদে উপবৃত্তির টাকা দেখতে চান, তবে উপরে দেখানো নিয়ম অনুসরণ করে একই নিয়মে নগদে উপবৃত্তির টাকা চেক করতে পারবেন। অ্যাপ দিয়ে উপবৃত্তির টাকা চেক করতে নগদ অ্যাপ এ লগিন করার পর  ব্যালান্স জানতে ট্যাপ করুন বাটনে ক্লিক করলেই আপনার একাউন্টে আসা উপবৃত্তির টাকার পরিমাণ দেখতে পারবেন।

নগদ একাউন্ট এর ধরণ

নগদ এর দুই ধরণের একাউন্ট রয়েছে। একটি হচ্ছে সাধারণ এবং অন্যটি হচ্ছে ইসলামিক। ইসলামিক একাউন্ট এর ক্ষেত্রে আপনি শরিয়াহ মেনে নগদ দিয়ে লেনদেন করতে পারবেন। আপনার একাউন্ট যদি সাধারণ হয়ে থাকে, তবে নগদ অ্যাপ কিংবা নগদ একাউন্ট দেখার কোড ডায়াল করে নগদ একাউন্ট এর ধরণ পরিবর্তন করতে পারবেন। নিচে আমি কোড ডায়াল করে এবং অ্যাপ দিয়ে কিভাবে নগদ একাউন্ট এর ধরণ পরিবর্তন করবেন সে বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেছি।

নগদ অ্যাপ দিয়ে নগদ একাউন্ট এর ধরণ পরিবর্তন : 

নগদ অ্যাপ দিয়ে আপনার নগদ একাউন্ট এর ধরণ পরিবর্তন করতে হলে প্রথমেই আপনার নগদ একাউন্টে আপনার নগদ একাউন্ট এর পিন নাম্বার দিয়ে লগইন করে নিবেন। এরপর নিচের ডান দিকে দেখতে পারবেন আমার নগদ বা My Nagad নামে একটি অপশন আছে। সেখানে ক্লিক করবেন। অতঃপর, উপরের দিকে একাউন্টের ধরণ এ ক্লিক করে আপনার নগদ একাউন্ট এর ধরণ পরিবর্তন করে নিতে পারবেন।

নগদ মোবাইল ব্যাংকিং হেল্পলাইন নাম্বার

নগদ একাউন্ট ব্যবহার করার সময় আমাদের অনেক সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। এ সময় যদি আমাদের সমাধান জানা না থাকে, তবে আরও অনেক মুশকিলে পড়তে হয়। এজন্য আমাদের প্রয়োজন হবে নগদ হেল্পলাইন নাম্বার। এতে করে, নগদ বিষয়ক যেকোনো সমস্যায় তাদের কাছে কল করে আপনার সমস্যার সমাধান করে নিতে পারবেন।  নগদ হেল্পলাইন নাম্বার হচ্ছে : 16167 এবং 09609-616167 । কিংবা তাদেরকে মেইল করতে পারেন : info@nagad.com.bd

আমাদের শেষ কথা

আজকের এই পোস্টে আমি আপনাদের সাথে নগদ একাউন্ট দেখার নিয়ম নিয়ে বিস্তর আলোচনা করার চেষ্টা করেছি। আশা করছি নগদ একাউন্ট চেক করার নিয়ম জেনে গেছেন। যদি নগদ একাউন্ট দেখার নিয়ম নিয়ে কোনো প্রশ্ন থাকে, তবে অবশ্যই মন্তব্য করবেন। নগদ একাউন্ট বিষয়ক যেকোনো সমস্যায় আমাদেরকে প্রশ্ন করতে পারেন। আজকের মতো এখানেই শেষ করছি। আবারও দেখা হবে নগদ নিয়ে অন্য কোনো একটি পোস্টে। আল্লাহ হাফেয।