ফেসবুকে কিভাবে টাকা আয় করা যায় । ফেসবুক পেজ থেকে টাকা ইনকাম করার 6টি উপায়

ফেসবুকে কিভাবে টাকা আয় করা যায় জানতে চান? বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম হলো ফেসবুক। বর্তমানে বিশ্বব্যাপী ফেসবুক ব্যবহারকারীর সংখ্যা প্রায় ২ বিলিয়ন। আমরা প্রায় সকলেই কম বেশি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে থাকি। কেউ হয়তো ইউটিউব ভিডিও দেখছেন, কেউ আবার ফেসবুকে নিউজ পড়ছেন, কেউ বা ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করেছেন। আমরা প্রায় সময়ই সোশ্যাল মিডিয়া কোন না কোন ভাবে ব্যবহার করছি। আধুনিক যুগে বাচ্চা থেকে শুরু করে যুবক-যুবতী, বৃদ্ধ-বৃদ্ধা সবাই কমবেশি সোশ্যাল মিডিয়ার সাথে জড়িত।

ফেসবুকে কিভাবে টাকা আয় করা যায়
ফেসবুকে কিভাবে টাকা আয় করা যায়

ফেসবুকে কিভাবে টাকা আয় করা যায় how to earn money from facebook

সময়ের সাথে তাল মিলিয়ে মানুষ এখন টাকা আয়ের ক্ষেত্র হিসেবে অনলাইন আয়কে বেছে নিয়েছে। অনেকের কাছে ফেসবুক শুধুমাত্র সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম হিসেবে পরিচিত হলেও, ফেইসবুক কিন্তু হতে পারে আপনার ইনকামের অন্যতম উৎস। কি জানতে চান ফেসবুকে কিভাবে টাকা আয় করা যায়? চলুন জেনে নেয়া যাক এই সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্যাদি। ফেসবুক থেকে টাকা আয় করার বেশ কিছু উপায় রয়েছে। এখন আমি ধাপে ধাপে সেই উপায় গুলো নিয়ে আলোচনা করবো এবং আপনাকে একটি পরিপূর্ণ গাইডলাইন দিব যাতে আপনিও খুব সহজেই ফেসবুক থেকে টাকা আয় করতে পারেন।

ফেসবুকে আয় করার পদ্ধতি

বিভিন্ন পদ্ধতিতে আপনি ফেসবুক থেকে আয় করতে পারেন। অনেকেই প্রশ্ন করে যে, ফেসবুকে কিভাবে টাকা আয় করা যায়, তো চলুন জেনে নেই ফেসবুক থেকে আয়ের উপায়সমূহ:

ফেসবুকে একাউন্ট খুলে আয়

বর্তমানে কন্টেন্ট ক্রিয়েটর হলো বহুল আলোচিত এবং জনপ্রিয় একটি পেশা। একটা সময় শুধুমাত্র ভিডিও আপলোডের জন্য সকলে ইউটিউবকে প্রাধান্য দিতেন। কিন্তু সময়ের পরিক্রমায় মানুষ এখন ভিডিও আপলোডের ক্ষেত্রে, নিজেকে একজন কন্টেন্ট ক্রিয়েটর হিসেবে প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে,বেছে নিয়েছে ফেসবুককে। আমরা জানি, বিশ্বের সবচেয়ে বেশি মানুষ অন্যান্য সকল সামাজিক মাধ্যম থেকে ফেসবুকে সবচেয়ে বড় বেশি সচল থাকে ফেসবুকে। তাই যদি কন্টেন্ট ক্রিয়েটররা তাদের ভিডিও আপলোডের জন্য ফেসবুককে প্রধান্য দেয় তাহলে মন্দ হবে না।

কন্টেন্ট ক্রিয়েটররা তাদের নিজস্ব মেধা, মনন, বুদ্ধিমত্তা এবং সৃজনশীলতাকে কাজে লাগিয়ে শিক্ষা, সংস্কৃতি, ইতিহাস, ঐতিহ্য কিংবা সমসাময়িক বিষয়ের উপর কন্টেন্ট তৈরি করে থাকে এবং সেই কন্টেন্ট সমূহ তাদের ব্যক্তিগত ফেসবুক একাউন্ট, নিজস্ব পেইজ একাউন্টে পাবলিশ করে থাকে। ফেসবুকে কোন ভিডিও পাবলিশ হলে সারা বিশ্বের মানুষ, সেই ভিডিও ভিউ করে। তারা নিজেরা সেই ভিডিও উপভোগ করে এবং নিজের ফ্রেন্ড সার্কেলে সেই ভিডিওটি শেয়ার করে। যার ফলে একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে পুরো সোশ্যাল মিডিয়াতে। আপনি যদি কন্টেন্ট ক্রিয়েটর হিসেবে কন্টেন্ট প্রকাশের মাধ্যম হিসাবে ফেসবুককে বেছে নেন তাহলে আপনি নানা ভাবে আয় করার সুযোগ পাবেন। যেমনঃ

  1. গুগল এডন্সেস থেকে।
  2. ফেসবুক এড থেকে।
  3. বিভিন্ন স্পন্সরশীপ থেকে।

কন্টেন্ট ক্রিয়েটর ক্যারিয়ারে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করার অনেক ক্ষেত্র পাবেন। আপনি যদি নিজেকে সেই উচ্চতায় অধিষ্ঠিত করতে চান তাহলে আজই ফেসবুকে কন্টেন্ট ক্রিয়েটর হিসেবে যাত্রা শুরু করুন। একজন কন্টেন্ট ক্রিয়েটর হয়ে ফেসবুকে আয় করতে পারবেন।

আরো পড়ুনঃ অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করার সহজ উপায়

ফেসবুক পেজের মাধ্যমে টাকা আয়

বর্তমান সময়ের সবচেয়ে আলোচিত ব্যবসা হলো ই- কমার্স। রাতারাতি ধনী হওয়ার তীব্র নেশায় অনেকেই এই পেশায় আগ্রহী হচ্ছে। নিজের একটি পরিচয় তৈরীর লক্ষ্যে এই স্বাধীন ব্যবসায় আগ্রহী হচ্ছে অনেকেই। যেহেতু প্রায় সকল শেণীর, সকল বয়সের মানুষের সরব উপস্থিতি আছে ফেসবুকে তাই যে কোন ধরণের ব্যবসার প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে মানুষ বেছে নিয়েছে ফেসবুককে।

যারা ব্যবসা করে অথবা যারা নিজের ব্যক্তিগত পরিচিত তুলে ধরতে চায় ফেসবুকের মাধ্যমে, তারা সকলেই ফেসবুকে নিজের একটি পেইজ খুলে থাকে। সময়ের বাড়ার সাথে সাথে সেই পেজে মানুষের উপস্থিত বৃদ্ধি পায়। সেই সাথে পাল্লা দিয়ে ফলোয়ার সংখ্যা বৃদ্ধি পায় যার ফলে একটি পেইজ জনপ্রিয় হয়ে উঠ খুব অল্প সময়ে।

যখন একটি পেইজে ফলোয়ারের সংখ্যা বৃদ্ধি পেতে থাকবে তখন এই পেইজ ব্যবহার করে আপনি রাতারাতি নিজের পরিচিতি অনেক মানুষের মাঝে তুলে ধরতে পারবেন। ফলে আপনার ব্যবসা ও ব্যক্তি পরিচিতি অনেক গুন বেড়ে যাবে। এছাড়া অনেক জনপ্রিয় ফেসবুক পেজের মালিক দৈনন্দিন ব্যস্ততার কারণে নিজে ফেসবুক পেজটিতে সময় দিতে পারে না। ফলে তার পক্ষে পেজটি ম্যানেজ করা তার জন্য বেশ কষ্টস্বাধ্য হয়ে উঠে। ফলে সে এই পেইজটি বিক্রি করে অনায়াসে ভালো পরিমাণ টাকা আয় করতে পারবেন।

পেজ বিক্রির ফলে পেইজের অনার যেমন লাভবান হবেন ঠিক তেমনি যে পেজ কিনবে সে ও লাভবান হবে। তাই আপনি যদি ফেসবুক থেকে টাকা আয় করতে চান, তাহলে আপনিও ফেসবুকে পেইজ খুলে সেই পেইজে সঠিক ভাবে কাজ করার মাধ্যমে লাইক ও ফলোয়ার সংখ্যা বাড়িয়ে সেই পেইজ বিক্রি করে টাকা আয় করতে পারেন।

ফেসবুক গ্রুপের থেকে টাকা আয়

আজকাল ই-কমার্স মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনের প্রধান কেন্দ্র হয়ে উঠেছে। ফেসবুককে ঘিরে গড়ে উঠেছে অনেক ব্যবসায়িক খাত। একটি ব্যবসার পণ্য তখনই সবার সামনে উপস্থাপন করা যায় যখন আপনি সেই পণ্যগুলো মানুষের সামনে তুলে ধরতে পারেন। তাই আজকাল বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান বিজ্ঞাপন প্রচারের মাধ্যমে তাদের ব্যবসার পরিচয় সবার কাছে তুলে ধরতে চায়।

অনেক প্রতিষ্ঠানের তাদের ব্যবসা সবার সামনে তুলে ধরার জন্য একটি ভাল গ্রুপ নেই। সুতরাং আপনার যদি একটি ভালো গ্রুপ থাকে তবে আপনি আপনার অন্যান্য ব্যবসায়িক পণ্যের প্রচার করে ভাল মানের কমিশন ভিত্তিক অর্থ উপার্জন করতে পারেন। আজকাল অনেকেই ফেসবুক গ্রুপের মাধ্যমে পণ্যের প্রচার করতে চান। কিন্তু পণ্য প্রচারের জন্য কোন উপযুক্ত মাধ্যম খুঁজে পান না। আপনার যদি একটি ফেসবুক গ্রুপ থাকে এবং আপনি সেই গ্রুপ থেকে অর্থ উপার্জন করতে চান তবে আপনি গ্রুপের মাধ্যমে অন্য লোকের পণ্যের প্রচার করে ভাল মানের অর্থ উপার্জন করতে পারেন।

ফেসবুকে ভিডিও আপলোড করে আয়

বর্তমানে ফেসবুককেন্দ্রিক ব্যবসা খুবই জমজমাট । তাই ব্যক্তিগত ব্যবসার প্রচারের জন্য বিজ্ঞাপনের প্রয়োজন। এক সময় মানুষ তাদের ব্যক্তিগত পণ্যের প্রচারের জন্য দ্বারে দ্বারে ঘুরতেন। কিন্তু বর্তমানে অবস্থা আর আগের মতো নাই। পণ্যের প্রচারে এসেছে আধুনিকতার ছোঁয়া। ভিডিও বিজ্ঞাপন পণ্য প্রচারের একটি সহজ উপায় হয়ে উঠেছে। যেহেতু ব্যবসা চলছে ফেসবুক কেন্দ্রিক, তাই মানুষ বিজ্ঞাপনের জন্য ফেসবুককেই বেছে নিচ্ছে।

ফেসবুকে বিজ্ঞাপন দেওয়ার জন্য আপনার একটি ফেসবুক পেজ বা ফেসবুক গ্রুপ প্রয়োজন। আপনি YouTube-এ বিজ্ঞাপন ভিডিও থেকে অর্থ উপার্জন করতে পারেন। একইভাবে, আপনি ফেসবুকে বিজ্ঞাপন ভিডিও প্রচার করে এড ব্রেক এর মাধ্যমে অর্থ উপার্জন করতে পারেন। আপনি যদি বিজ্ঞাপন প্রচারের মাধ্যমে ফেসবুক এড ব্রেক থেকে অর্থ উপার্জন করতে চান তবে আপনাকে ফেসবুকের দেওয়া নিয়মগুলি অনুসরণ করতে হবে।

ফেসবুক মার্কেটপ্লেস থেকে আয়

বর্তমানে ব্যবসায়িক ক্ষেত্রে ফেসবুকের একটি নতুন সংযোজন হল মার্কেটপ্লেস। এই জায়গার মাধ্যমে আপনি মার্কেটপ্লেসে বিভিন্ন পণ্য তুলে ধরতে পারেন। যেখানে আপনি ঘরে বসে যেকোনো সময় পণ্য বিক্রি করে Facebook থেকে অর্থ উপার্জন করতে পারবেন।

ফেসবুক মার্কেটপ্লেসের মাধ্যমে গ্রাহকরা তাদের পণ্য ফেসবুকের মাধ্যমে বিনামূল্যে বিক্রি করতে পারবেন। আপনি ঘরে বসেই পণ্য বিক্রি করে অর্থ উপার্জন করতে পারেন।

আরো পড়ুনঃ কুইজ খেলে টাকা ইনকাম

ফেসবুকে ফ্যান পেজ তৈরি করে আয়

আপনি যদি একজন ব্যবসায়ী হন এবং আপনার নিজের একটি ব্রান্ড পরিচিত সকলেই মাঝে তুলে ধরতে চান তার জন্য একটি মাধ্যম প্রয়োজন। ফেসবুকে নিজের বা ব্যবসার পরিচিতি বৃদ্ধির অন্যতম মাধ্যম হল ফেইসবুক পেইজ।

কিন্তু আমরা অনেকেই কিভাবে ফেসবুক পেজ তৈরি করতে হয় তা জানি না। আপনার যদি একটি ফেসবুক আইডি থাকে এবং সেই ফেসবুক আইডিত ৫০০ জনের বেশি বন্ধু থাকে, তাহলে আপনি একটি ফ্যান পেজ তৈরি করতে পারেন। সেই ফ্যান পেজে আপনি বিভিন্ন পণ্যের প্রচার করতঃ সেই পণ্যগুলি বিক্রি করে টাকা ইনকাম করতে পারেন।

কিভাবে ফেসবুকে পেজ খুলবেন

চলুন জেনে নেই কিভাবে তৈরি করতে হয় একটি ফ্যানপেজ –

ফ্যান পেজ তৈরি করার জন্য আপনার একটি অবশ্যই একটি ফেসবুক একাউন্ট থাকতে হবে। ফেসবুক একাউন্ট থেকে আপনাকে প্রথমে আপনার ব্যক্তিগত আইডি থেকে লগইন করে Creat অপশনে ক্লিক করতে হবে।

Creat অপশন সিলেক্ট করলে একটি পেজ আসবে। সেখানে আপনাকে Page Option নামে একটি অপশন সিলেক্ট করতে হবে।

Page Option থেকে আপনি বিজনেস বা ব্র্যান্ড অপশনে ক্লিক করতে হবে।

সেখানে আপনাকে আপনার ফ্যানপেইজ জন্য একটি নাম সিলেক্ট করে বসিয়ে দিতে হবে।

নামটি সিলেক্ট করার পর আপনাকে একটি প্রোফাইলের জন্য ছবি সিলেক্ট করতে হবে। মনে রাখবেন, আপনি যে ধরণের ব্যবসা করবেন প্রোফাইলের ছবিটি যেন তা কেন্দ্র করে হয়।

প্রোফাইল পিকচারের পর পেইজের জন্য একটি কভার ইমেজ সিলেক্ট করতে হবে যা মাধ্যমে আপনার ফেসবুক পেজ তৈরির কাজ শেষ হবে।

ফেসবুকে Instant Article থেকে আয়

বর্তমানে ফেসবুক থেকে ইনকামের ক্ষেত্রে নতুন ক্ষেত্র উন্মোচন হয়েছে। কাজের নতুন নতুন ক্ষেত্র তৈরি হয়েছে। তাই আজকাল মানুষ ফেসবুকে কাজ করতে অধীর আগ্রহে মুখিয়ে থাকে। ফেসবুকে আয়ের যতগুলো মাধ্যম রয়েছে তার মধ্যে অন্যতম হলো আর্টিকেল রাইটিং কিংবা কন্টেন্ট রাইটিং।

আজকাল ফেসবুক হতে আপনি বিভিন্ন গ্রুপের মাধ্যমে পেয়ে যাবেন আর্টিকেল রাইটিংয়ের কাজ। এই কাজটি করে আপনি ভালো মানের সন্মানী পেতে পারে। তাই আর দেরি কেন? আজই ফেসবুক থেকে আর্টিকেল রাইটিং কাজ খুঁজে সেখান থেকে অনালাইনে টাকা ইনকাম করুন।

ফেসবুকে কিভাবে টাকা আয় করা যায় সম্পর্কে শেষ কথা

প্রিয় পাঠক আজকের পোষ্টে আমরা আলোচনা করলাম ফেসবুকে কিভাবে টাকা আয় করা যায় সেই বিষয়ে। আশা করি অনলাইনে ইনকামের ক্ষেত্রে ফেসবুকের গুরুত্ব অনুধাবন করতে সক্ষম হয়েছেন। সময়ের সাথে অনলাইনে ইনকামের ক্ষেত্রে আধুনিকতার ছোঁয়া লেগেছে। মানুষ বর্তমানে ইনকামের জন্য বেছে নিয়েছে ফেসবুকের মাধ্যমে ইনকামকে। অদূর ভবিষ্যতে এই খাত আরও সম্প্রসারিত হবে এই আশা রেখে আজকের মতো শেষ করছি। আল্লাহ হাফেজ। দেখা হবে পরবর্তী পোষ্টে

 

 

 

Leave a Comment