যাকাতের নিসাব কত টাকা ২০২৩। ১ লাখ টাকায় যাকাত কত?

যাকাতের নিসাব কত টাকা ২০২৩। ১ লাখ টাকার যাকাত কত – আসসালামু আলাইকুম।  প্রিয় পাঠক কেমন আছেন? আশা করি ভালো আছেন। আজকের পোস্টে আমরা জানব যাকাতের নিসাব কত টাকা এবং ১ লাখ টাকার যাকাত কত সেই বিষয়ে। আশা করি যারা যাকাত সম্পর্কে জানতে চান তারা উপকার পাবেন। তাহলে চলুন শুরু করা যাক –

যাকাত কি যাকাত কাকে বলে?

যাকাত শব্দটি এসেছে আরবি ভাষা থেকে। এর বাংলা প্রতিশব্দ হচ্ছে পরিপূর্ণতা, পবিত্রতা, বৃদ্ধি পাওয়া এবং বরকত হওয়া ইত্যাদি। ইসলামের পাচটি মূল স্তম্ভের মধ্যে যাকাত একটি। হিজরি ২য় সনে নিসাব পরিমাণ সম্পদের মালিক মুসলিম নারী পুরুষের উপর যাকাত ফরজ হয়।  কোন মুসলিম ব্যক্তি ১ বছর সময় নিসাব পরিমাণ সম্পদ মালিক থাকলে তাকে যাকাত দিতে হবে। ইসলামে যাকাত প্রদানের মূল উদ্দেশ্য হলো ধনীদের সম্পদের উপর গরীবদের অধিকার প্রতিষ্ঠা করা। যাকাতের কিছু শর্ত আছে, সেই শর্তগুলো মেনে যাকাত আদায় করা প্রত্যেক মুসলমানের জন্য অপরিহার্য। 

যাকাতের-নিসাব-কত-টাকা-২০২৩
যাকাতের-নিসাব-কত-টাকা-২০২৩

নিসাব কি?

নিসাব একটি আরবি শব্দ।  যাকে  যাকাত প্রদানের নিমিত্তে সম্পদ হিসাবের মাপকাঠি হিসেবে গন্য করা হয়। নিসাব পরিমাণ সম্পদ হলো সাড়ে সাত তোলা সোনা বা সাড়ে বায়ান্ন তোলা রুপা কিংবা এর সমপরিমাণ অর্থকে নিসাব বলে। এই পরিমাণ সম্পদ যদি কারো কাছে থাকে তাহলে তার উপর যাকাত ফরজ হয়।

যাকাতের নিসাব কত টাকা ২০২৩

বন্ধুরা আগেই উল্লেখ করেছি নিসাব পরিমাণ সম্পদের মালিক হলে যাকাত ফরজ হয়। এখন প্রশ্ন হলো ২০২৩ সালে যাকাতের নিসাব পরিমাণ কত টাকা?  যদি কোন ব্যক্তি সোনার দাম হিসেব করে যাকাত দেওয়ার চিন্তা করে তাহলে তার প্রায় ৬০০০০০.০০ টাকার মালিক হতে হবে। বর্তমান বাজারে সাড়ে সাত তোলা সোনার দাম প্রায় ছয় লাখ টাকা। আর কেউ যদি রূপার দাম ধরে যাকাত দিতে চাই তাহলে তাকে প্রায় ৬০০০০.০০ টাকার মালিক হতে হবে। উল্লেখ্য যে, সোনা ও রুপার বাজার প্রতিদিনই উঠা-নামা করে তাই যাকাত দেওয়ার সময় এই বিষয় টি খেয়াল রাখতে হবে। 

বন্ধুরা এতক্ষণ আমরা জানলাম যাকাত কি বা যাকাত কাকে বলে, নিসাব কি, যাকাতের নিসাব কত টাকা ২০২৩ এই বিষয়ে। এখন আমরা জানব ১ লাখ টাকার যাকাত কত এই সম্পর্কে। 

আরো পড়ুনঃ যাকাত কাকে বলে?

১ লাখ টাকার যাকাত কত? 

যাকাত প্রদানের শর্ত অনুযায়ী নিসাব পরিমাণ সম্পদের শতকরা ২.৫% হারে যাকাত দিতে হবে। সেই হিসাবে ১ লাখ টাকার ২.৫% হলো ২৫০০.০০ টাকা। অর্থাৎ ১ লাখ টাকার যাকাত হবে ২৫০০০.০০ টাকা। অতএব নিসাব পরিমাণ সম্পদের ৪০ ভাগের এক ভাগ সম্পত্তি যাকাত হিসেবে প্রদান করতে হবে। আশা করি বুঝতে পেরেছেন। 

কত গ্রাম স্বর্নে যাকাত দিতে হবে

যাকাত প্রদানের শর্ত অনুযায়ী সাড়ে সাত তোলা স্বর্ন থাকলে যাকাত দিতে হবে। সাড়ে সাত তোলা স্বর্নে ৮৭.৪৫ গ্রাম স্বর্ন হয়। তাই ৮৭.৪৫ গ্রাম বা তারচেয়ে বেশী পরিমাণ স্বর্ন থাকলে যাকাত দিতে হবে।  অপরদিকে সাড়ে বায়ান্ন তোলা রুপা যা গ্রামে রুপান্তর করলে ৬১২.৩৫ গ্রাম রুপা হয়। অর্থাৎ ৬১২.৩৫ গ্রাম রুপা থাকলে যাকাত দিতে হবে।

আরো পড়ুনঃ যাকাত দেওয়ার নিয়ম   

যাকাতের নিসাব কত টাকা FAQ

যাকাতের নিসাব কি?

যাকাতের নিসাব পরিমাণ সম্পদ হলো যাকাত ফরজ হওয়ার জন্য কোন মুসলমানের নূন্যতম সম্পদের পরিমাণ। সাড়ে সাত তোলা স্বর্ন বা সাড়ে বায়ান্ন তোলা রুপা অথবা এর সমপরিমাণ অর্থকে নিসাব বলে। 

যাকাত প্রদানের উদ্দেশ্য কি?

যাকাত প্রদানের উদ্দেশ্য হলো গরিব, মিসকিন, অভাবগ্রস্থ ব্যক্তিকে সাহায্য করা৷ এছাড়া মসজিদ এবং স্কুলের মতো ধর্মীয় প্রতিষ্ঠাকে সমর্থন এবং ধর্মীয় প্রসারের কাজেও এটি ব্যবহ্রত হয়। 

যাকাতের হার কত?

যাকাতের হার হলো শতকরা ২.৫%। 

যাকাত কাদের দিতে হবে?

যে সকল মুসলমান নিসাব পরিমাণ সম্পদের মালিক তাকে যাকাত দিতে হবে। 

যাকাতের নিসাব কত টাকা সম্পর্কে শেষ কথা 

উপরের আলোচনা থেকে আমরা জানতে পারলাম যাকাতের নিসাব কত টাকা। এছাড়া ১ লাখ টাকার যাকাত কত সেই সম্পর্কেও জানতে পেরেছি। আশা করি আপনারা যাকাতের এই বিষয় গুলি সম্পর্কে ভালো ধারনা পেয়েছেন। আল্লাহ হাফেজ।। 

Leave a Comment