মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করার উপায়

মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করতে চান? আমাদের দেশে পড়ালেখা করে প্রতি মাসে ২০ হাজার টাকা ইনকাম করার জন্য অনেক সময় লেগে যায়। অনেকেই এর আগে অনলাইনে প্রতি মাসে ২০ হাজার টাকা উপার্জন করতে চান। আপনিও যদি তাদের মাঝে একজন হয়ে থাকেন, তবে এই পোস্টটি সম্পূর্ণ পড়বেন। কারণ, আজকের এই পোস্টে আপনাদের সাথে অনলাইনে টাকা উপার্জন করার কয়েকটি বিশ্বস্ত মাধ্যম নিয়ে আলোচনা করবো।

অনলাইনে অনেক কাজ করে টাকা ইনকাম করা যায়। অনেক কাজ রয়েছে, যা আপনি কয়েকদিন করার পর সেই কাজ থেকে আর ইনকাম করতে পারবেন না। আবার, অনেকেই অনলাইন থেকে আপনাকে ইনকাম করার পথ তৈরি করে দেয়ার জন্য টাকা চেয়ে থাকে, আপনি যদি উক্ত ব্যক্তিকে টাকা দেন, তবে পুরো টাকা জলে ভাসিয়ে দেয়ার ন্যায় হয়ে যাবে। তাই, আপনাদের জন্য এই পোস্টে এমন কিছু উপায় নিয়ে আলোচনা করবো, যেগুলো অনুসরণ করে আপনি আজীবন প্রতি মাসে ২০ হাজার টাকা থেকে শুরু করে এর অধিক পরিমাণে ইনকাম করতে পারবেন।

তো চলুন, দেখে নেয়া যাক, কি কি সেই উপায়, যার মাধ্যমে প্রতি মাসে বিশ হাজার টাকা ইনকাম করা যায়।

মাসে ২০ হাজার টাকা আয়

মাসে ২০ হাজার টাকা আয়
মাসে ২০ হাজার টাকা আয়

অনেকেই ঘরে বসে প্রতি মাসে ২০ হাজার টাকা ইনকাম করার স্বপ্ন দেখেন। কিন্তু, সঠিক উপায় এবং পদ্ধতি না জানার কারণে অনলাইন থেকে টাকা উপার্জন করতে পারেন না। আপনিও যদি তাদের মাঝে একজন হয়ে থাকেন, তবে এই পোস্টে যেসব পদ্ধতি নিয়ে আলোচনা করবো, সেগুলো থেকে যেকোনো পদ্ধতি অনুসরণ করলে, প্রতি মাসে কয়েক হাজার টাকা থেকে শুরু করে লক্ষ টাকা অব্দি ইনকাম করতে পারবেন।

অনলাইনে ইনকাম করার সময় অনেক ক্ষেত্রেই ইনকামের পরিমাণ কম হয়। কিন্তু, ধৈর্য ধরে কাজ করে যেতে পারলে এই ইনকামের পরিমাণ অনেক বৃদ্ধি পায়। ন্যূনতম থেকে শুরু করে এই ইনকামের পরিমাণ অনেক বেশি হয়ে থাকে। তো চলুন, দেখে নেয়া যাক, মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করার পদ্ধতিগুলো।

মাসে ২০ হাজার টাকা ইনকামের পদ্ধতি

  • ডিজিটাল মার্কেটিং করে আয়
  • পার্ট টাইম ব্যবসা করে টাকা ইনকাম
  • টুইটার থেকে টাকা ইনকাম
  • টিকটক থেকে টাকা ইনকাম

তো চলুন, উপরে উল্লেখ করে দেয়া মাধ্যম গুলো নিয়ে নিম্নে আরও বিস্তারিত আলোচনা করা যাক। কীভাবে উপরের মাধ্যমগুলো দিয়ে টাকা ইনকাম করা শুরু করবেন।

ডিজিটাল মার্কেটিং করে আয়

ডিজিটাল মার্কেটিং করে আয়
ডিজিটাল মার্কেটিং করে আয়

একটি প্রবাদ আছে, যত প্রচার তত প্রসার। অর্থাৎ, একটি ব্যবসায় এর যত বেশি প্রচার করা হবে, সেটির তত বেশি প্রসার হবে। প্রচার করার মাধ্যম হচ্ছে মার্কেটিং করা। সবকিছু এখন ডিজিটাল হয়ে গেছে, অনলাইন নির্ভর হয়ে গেছে। তাই, আমরা যদি অফলাইনে ব্যবসা করি, তবে আমাদের অনলাইনেও ব্যবসা করার উদ্যোগ গ্রহণ শুরু করা উচিত। আর, অনলাইনে ব্যবসার প্রচার করতে গেলে আমাদেরকে ডিজিটাল ভাবে মার্কেটিং করতে হবে।

অর্থাৎ, অনলাইনে আমাদের ব্যবসার প্রচারনা চালানোর জন্য ইমেইল, সোশ্যাল মিডিয়া, ওয়েব-ভিত্তিক বিজ্ঞাপন, এসএমএস, অডিও ইত্যাদি ব্যবহার করে যেসব কাজ করা হয়, সেগুলোই হচ্ছে ডিজিটাল মার্কেটিং। আপনি ইউটিউব কিংবা ফেসবুক তো ব্যবহার করেন, তাই না? ফেসবুক স্ক্রল করার সময় আপনার সামনে বিভিন্ন স্পন্সর এড আসেনি? কিংবা ইউটিউব ভিডিও দেখার সময় ফুডপান্ডা কিংবা বিকাশ অথবা অন্য কোনো এড আসেনি? কখনো কি ভেবে দেখেছেন? এই এডগুলো কেনো দেয়?

আপনারা যেসব এড দেখেন, এগুলো উক্ত কোম্পানি প্রচার করার জন্য ইউটিউব এবং ফেসবুককে নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা দিয়ে থাকে। এভাবে করেই বিভিন্ন কোম্পানি তাদের ব্যবসার ডিজিটাল মার্কেটিং করে থাকে। মানুষকে আকৃষ্ট করার জন্য, পন্য বা সেবা ক্রয় করার জন্য এমন মার্কেটিং করা হয়ে থাকে।

ডিজিটাল মার্কেটিং করে আয় করার উপায়

ডিজিটাল মার্কেটিং করে মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করতে চাইলে আপনাকে ডিজিটাল মার্কেটিং এর বিভিন্ন সেক্টর এর মাঝে যেসব কাজ রয়েছে, সেগুলো শিখতে হবে। পূর্বে যেমন বলেছি, আমরা যদি আমাদের ব্যবসা বৃদ্ধি করতে চাই, তবে আমাদের ডিজিটাল মার্কেটিং করতে হবে। কিন্তু, যেসব বড় কোম্পানি রয়েছে, তাদের মালিকের হাতে কি সময় আছে ডিজিটাল মার্কেটিং করে বেড়ানোর? তারা করে কি? তারা ডিজিটাল মার্কেটার হায়ার করে। যারা, তাদের হয়ে তাদের ব্যবসার মার্কেটিং করে দিবে।

আপনি যদি ডিজিটাল মার্কেটিং শিখেন, তবে এমন সব কোম্পানির হয়ে ডিজিটাল মার্কেটিং করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। এছাড়াও, ডিজিটাল মার্কেটিং শিখে বিভিন্ন মার্কেটপ্লেসে কাজ করতে পারবেন। এসব মার্কেটপ্লেস থেকে আপনাকে বিভিন্ন কোম্পানি হায়ার করবে। এভাবে করে ডিজিটাল মার্কেটিং করে মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করতে পারবেন।

পার্ট টাইম ব্যবসা করে টাকা ইনকাম

পার্ট টাইম ব্যবসা করে ইনকাম
পার্ট টাইম ব্যবসা করে ইনকাম

পার্ট টাইম বা অবসর সময়ে চাকুরি করার মতো করে ব্যবসা করা সম্ভব। অনেকেই তাদের অবসর সময়ে চাকুরি করে থাকে। চাকরি করলে নির্দিষ্ট পরিমাণে বেতন পাওয়া যায়। আপনি চাইলে আপনার অবসর সময়ে ব্যবসা করে অনেক সহজেই ভালো পরিমাণে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। এমন কিছু পার্ট টাইম ব্যবসা আইডিয়া রয়েছে, যেগুলো করে আপনি অল্প সময় দিয়েই ভালো পরিমাণে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। তো চলুন, মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করার পার্টটাইম ব্যবসাগুলো কি কি দেখে নেয়া যাক।

  • অনলাইনে ব্যবসা করে টাকা ইনকাম
  • ফ্রিল্যান্সিং করে টাকা ইনকাম
  • ব্লগিং ব্যবসা করে টাকা ইনকাম
  • টিউশনি বা কোচিং করিয়ে টাকা ইনকাম

উপরোক্ত পদ্ধতিতে আপনি ঘরে বসেই পার্টটাইম ব্যবসা করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। আপনার কাছে যদি একটি মোবাইল বা ল্যাপটপ থাকে, তবে আপনি সহজেই এই ব্যবসাগুলো করতে পারবেন। তো চলুন, মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করার উপায়গুলো নিয়ে আরও বিস্তারিত জেনে নেয়া যাক।

অনলাইনে ব্যবসা করে টাকা ইনকাম

অনলাইনে ব্যবসা করে টাকা ইনকাম করা যায়। আপনি যদি পার্ট টাইম ব্যবসা করে টাকা ইনকাম করতে চান, তবে অনলাইনে বিভিন্ন পন্যের ব্যবসা শুরু করতে পারেন। পাঞ্জাবি, কাপর, জামা, প্রসাধনী ইত্যাদি বিক্রি করে অনেকেই টাকা ইনকাম করছে। অনলাইনে পন্য বিক্রি করার জন্য একটি ফেসবুক পেজ তৈরি করে নিবেন। ভালো মানের পন্য কিনে এনে, সেগুলো আপনার উক্ত পেজে সেল দিয়ে ভালো পরিমাণে মুনাফা অর্জন করতে পারবেন।

ফ্রিল্যান্সিং করে টাকা ইনকাম

স্বাধীন পেশায় উপার্জন করাকে ফ্রিল্যান্সিং বলা হয়ে থাকে। অনলাইনের মাধ্যমে অন্য কারো হয়ে যেকোনো কাজ করে দিয়ে টাকা ইনকাম করাই হচ্ছে ফ্রিল্যান্সিং। আপনার যদি কোনো বিষয়ের উপর অভিজ্ঞতা থাকে, তবে সেটি বিক্রি করে টাকা উপার্জন করতে পারবেন। অভিজ্ঞতা বিক্রি মানে, কাউকে কাজ করে দিয়ে টাকা ইনকাম করা। ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসে গেলে দেখতে পাবেন, অনেকেই বিভিন্ন সেবা দিয়ে টাকা উপার্জন করছে। পার্ট টাইম ব্যবসা হিসেবে ফ্রিল্যান্সিং অনেক উত্তম একটি কাজ। এতে করে শুধুমাত্র কিছু সময় দিয়েই মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করা সম্ভব।

ব্লগিং ব্যবসা করে টাকা ইনকাম

ব্লগিং করে টাকা ইনকাম করা যায়। আপনি যদি পার্ট টাইম ব্যবসা করে মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করতে চান, তবে ব্লগিং ব্যবসা শুরু করতে পারেন। একটি ওয়েবসাইট বানিয়ে সেখানে আপনার অবসর সময়ে বিভিন্ন বিষয়ের উপর লেখালেখি করলে সেটা ব্লগিং বলা হবে। আপনার ওয়েবসাইটের ভিজিটর যখন বৃদ্ধি পাবে, তখন ওয়েবসাইটে এডস দেখিয়ে কিংবা অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। একটি ব্লগ সাইট থেকে প্রতি মাসে ১ লাখ টাকা অব্দি ইনকাম করা সম্ভব। অনেক সফল ব্লগার আছেন, যারা প্রতি মাসে ১ লাখ টাকার অধিক ইনকাম করে থাকে শুধু ব্লগিং করেই।

টিউশনি বা কোচিং করিয়ে টাকা ইনকাম

পার্ট টাইম ব্যবসা করে টাকা ইনকাম করতে চাইলে টিউশনি বা কোচিং করানো শুরু করতে পারেন। গনিত, বাংলা, ইংলিশ, একাউন্টিং, ফিজিক্স, কেমিস্ট্রি, ইত্যাদি যেকোনো বিষয়ের উপর টিউশনি কিংবা কোচিং শুরু করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। টিউশনি হলে একজন শিক্ষার্থীকে পড়ানোর বিনিময়ে কয়েক হাজার টাকা অব্দি পাবেন। যদি কোচিং করান, তবে একসাথে কয়েকজন শিক্ষার্থী পড়িয়ে মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করতে পারবেন।

আমাদের শেষ কথা

আজকের এই পোস্টে আপনাদের সাথে মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করার উপায় নিয়ে আলোচনা করেছি। এই পোস্টটি যদি আপনি সম্পূর্ণ পড়ে থাকেন, তবে আশা করছি প্রতি মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করার উপায়গুলো সমন্ধে বিস্তারিত জানতে পেরেছেন। এসব পদ্ধতি অনুসরণ করে অনেক সহজেই প্রতি মাসে অনেক ভালো পরিমাণ টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

1 thought on “মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করার উপায়”

  1. প্রতি মাসে মাসে ২০-হাজার টাকা ইনকাম সহজ নয়। চাইলে, অবশ্যই সবাই পারবেন। কাজ করুন। আয় করুন।

    Reply

Leave a Comment