মসজিদে প্রবেশের দোয়া – মসজিদ থেকে বের হওয়ার দোয়া

মসজিদে প্রবেশের দোয়া-আমাদের মাঝে অনেকেই আছেন মসজিদে প্রবেশের দোয়া জানেন না। আপনি কি মসজিদ থেকে বের হওয়ার দোয়া জানতে চান? তাহলে এই পোস্টটি আপনার জন্য। কেননা আজকের পোস্টে আমরা আলোচনা করব মসজিদে প্রবেশের দোয়া এবং মসজিদ থেকে বের হওয়ার দোয়া।

মসজিদে প্রবেশের দোয়া

আমরা যারা মুসলিম ধর্মে বিশ্বাসী তাদের কাছে মসজিদ অত্যন্ত পবিত্র স্থান। তাই মসজিদে প্রবেশের সময় সবাইকে অবশ্যই পবিত্রতা অর্জন করে প্রবেশ করা উচিত। মসজিদ যেহেতু আল্লাহর ঘর তাই সেখানে আল্লাহর ইবাদাত করার উদ্দেশ্যে প্রবেশ করাই শ্রেয়।

কিন্তু আল্লাহ ঘরে ঢোকার সময় যেমন পবিত্রতা অর্জন করতে হয় তদ্রূপ  মসজিদে প্রবেশের দোয়া রয়েছে যা মসজিদে প্রবেশের সময় পড়তে হয়।

শুধু মসজিদে প্রবেশের দোয়া পড়লেই হবেনা কেননা মসজিদে প্রবেশের দোয়া পড়ার পাশাপাশি আপনাকে পড়তে মসজিদ থেকে বের হওয়ার দোয়া। চলুন আজকের পোস্টের মাধ্যমে আমরা জেনে নেয় মসজিদে প্রবেশের দোয়া এবং মসজিদ থেকে বের হওয়ার দোয়া ছাড়াও মসজিদে প্রবেশের নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত।

মসজিদে প্রবেশের দোয়া পড়া কেন প্রয়োজন? 

আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ (সঃ) মসজিদে প্রবেশ করতে অযু করতেন। এরপর তিনি মসজিদে প্রবেশের সময় মসজিদে প্রবেশের দোয়া পাঠ করিতেন।  মসজিদে প্রবেশের দোয়া পড়ে মসজিদে প্রবেশ করলে ইবাদাতে মন বসে। মসজিদে প্রবেশের দোয়া পড়া কেন জরুরি আশা করি বুঝতে পেরেছেন। চলুন এখন জেনে নেয়া যাক মসজিদে প্রবেশের দোয়া।

আরো পড়ুনঃ আউযুবিল্লাহ অর্থ কি? 

মসজিদে প্রবেশের দোয়া – Mosjider probeser dua 

মসজিদে প্রবেশের দোয়া অনেকগুলো রয়েছে। যেমনঃ 

মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সঃ) যখন মসজিদে প্রবেশ করতে তখন এই দোয়াওটি পড়তেনঃ

اَعُوْذُ بِاللهِ الْعَظِيْمِ وَ بِوَجْهِهِ الْكَرِيْمِ وَ سُلْطَانِهِ الْقَدِيْمِ مِنَ الشَّيْطَانِ الرَّجِيْمِ – بِسْمِ اللهِ وَ اَعُوْذُ بِاللهِ الْعَظِيْمِ وَ بِوَجْهِهِ الْكَرِيْمِ وَ سُلْطَانِهِ الْقَدِيْمِ مِنَ الشَّيْطَانِ الرَّجِيْمِ

উচ্চারণ : ‘আউযুবিল্লাহিল আযিম ওয়া বিওয়াঝহিহিল কারিম ওয়া সুলতানিহিল ক্বাদিমি মিনাশ শায়তানির রাঝিম।’ (আবু দাউদ, ইবনে মাজাহ)

চেহারার এবং তাঁর চিরন্তন কর্তৃত্বের মাধ্যমে বিতাড়িত শয়তান থেকে আশ্রয় প্রার্থনা করছি।’

আরো পড়ুনঃ রোজা রাখার নিয়ত বাংলায়

এছাড়া আরো কিছু দোয়া রয়েছে। মহানবি (সঃ) তাঁর উম্মতদের মসজিদে প্রবেশের দোয়া পড়তে বলেছেন যেটি সেটি হলোঃ 

মসজিদে প্রবেশের দোয়া আরবিতে

اَلّلهُمَّ افْتَحْ لِيْ أَبْوَاب رَحْمَتِكَ

উচ্চারণ : ‘আল্লাহুম্মাফ তাহলি আবওয়াবা রাহমাতিকা।’

মসজিদে প্রবেশের দোয়া বাংলা

অর্থ : ‘হে আল্লাহ! আপনি আমার গোনাহগুলো ক্ষমা করে দিন এবং আমার জন্য আপনার রহমতের দরজাগুলো খুলে দিন।’

মসজিদে প্রবেশের সময় এই দোয়াটিও পড়তে বলেছেন হযরত মুহাম্মদ (সঃ)-

بِسْمِ اللهِ اَللهُمَّ صَلِّى عَلَى مُحَمَّدٍ

উচ্চারণ : ‘বিসমিল্লাহি আল্লাহুম্মা সাল্লি আলা মুহাম্মাদ।’

অর্থ : ‘হে আল্লাহ! মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের উপর শান্তি বর্ষন করুন।’ (ইবনুস সুন্নি)

মসজিদে প্রবেশের নিয়মঃ

মসজিদে প্রবেশের দোয়া পড়া যেমন জরুরী তেমনি রয়েছে আরো কিছু জরুরী ব্যাপার। মসজিদে প্রবেশের সময় এবং মসজিদ থেকে বের হওয়ার সময় আপনাকে মসজিদে প্রবেশের দোয়া এবং মসজিদ থেকে বের হওয়ার দোয়া পড়া ছাড়াও আরো অনেকগুলো কাজ করতে হবে। আপনাদের সুবিধার্থে মসজিদে প্রবেশের নিয়মগুলো উল্লেখ করা হলোঃ

  • অযু করে নিতে হবে
  • বিসমিল্লাহ বলতে হবে
  • ডান পা দিয়ে ঢুকতে হবে
  • মসজিদে প্রবেশের দোয়া পড়তে হবে
  • মসজিদ থেকে বের হওয়ার সময় বাম পা দিতে হবে আগে
  • মসজিদ থেকে বের হওয়ার দোয়া পড়তে হবে
  • বিসমিল্লাহ বলতে হবে

মসজিদে প্রবেশের এই নিয়মগুলো মেনে মসজিদে প্রবেশ করতে হয় সবসময়।

আরো পড়ুনঃ ঘুমানোর দোয়া বাংলায়

মসজিদ থেকে বের হওয়ার দোয়া পড়া কেন জরুরী?

মসজিদ থেকে বের হওয়ার দোয়া পড়া জরুরী কারণ মসজিদ থেকে বের হওয়ার সময় আল্লাহর কল্যাণ প্রার্থনা করতে হয়। আল্লাহর কাছে সবসময় মঙ্গল কামনা করতে হয়।

মসজিদ থেকে বের হওয়ার দোয়াঃ

মসজিদ থেকে বের হওয়ার দোয়া যেটি পড়তে হয় সেটি হলোঃ

اَللهُمَّ اِنِّىْ أَسْأَلُكَ مِنْ فَضْلِكَ

উচ্চারণ : ‘আল্লাহুম্মা ইন্নি আসআলুকা মিন ফাদলিকা।’

অর্থ : ‘হে আল্লাহ! আমি আপনার কাছে আপনার কল্যাণ চাই।’ (মুসলিম)

মসজিদে প্রবেশের দোয়া FAQ

প্রশ্নঃ মসজিদে প্রবেশ ও বাহির হওয়ার দোয়ার পূর্বে কি পড়তে হয়?
উত্তরঃ মসজিদে প্রবেশের দোয়া-“আল্লা-হুম্মা ইন্নি আসআলুকা মিন ফাদ্বলিকা।” অর্থাৎ, হে আল্লাহ, তুমি আমার জন্য তোমার রহমতের দরজাগুলো খুলে দাও। (মুসলিম ও মিশকাত শরিফ)।
মসজিদ থেকে বের  হওয়ার দোয়া-আল্লাহুম্মা ইন্নি আসআলুকা মিন ফাদলিকা। অর্থাৎ হে আল্লাহ, আমি তোমার কাছে তোমার অনুগ্রহ প্রার্থনা করছি। (মুসলিম ও মিশকাত শরিফ)।

প্রশ্নঃমসজিদে প্রবেশের দোয়ার অর্থ কি?

উত্তরঃ মসজিদে প্রবেশের দোয়ার অর্থহে আল্লাহ, তুমি আমার জন্য তোমার রহমতের দরজাগুলো খুলে দাও।
প্রশ্নঃ মসজিদে প্রবেশের সুন্নত কি কি?
উত্তরঃমসজিদে প্রবেশের সুন্নতসমূহ- ১.বিসমিল্লাহ পড়া, ২. দরুদ শরিফ পড়া, ৩. অতঃপর এই দোয়া পড়া ‘আল্লাহুম মাফতাহলি আবওয়াবারাহ মাতিক’, ৪. মসজিদে ডান পা আগে রাখা, ৫. ইতেকাফের নিয়ত করে প্রবেশ করা। (ইবনে মাজাহ : ১/৫৬; মেশকাত : ১/৪৬; শামী : ২/৪৪৩)
প্রশ্নঃ মসজিদে সালাম দেওয়া যাবে কি?
উত্তরঃ মসজিদে প্রবেশের সময় নামাজে বা অন্য কোনো ইবাদতে লিপ্ত নেই এমন কোন ব্যক্তির মুখোমুখি হলে অন্য কোনো মুসল্লির ইবাদতে ব্যাঘাত না ঘটে নিম্নস্বরে সালাম দেওয়া যাবে। কিন্তু যদি মুসল্লিরা নিজ নিজ ইবাদতে মশগুল থাকেন, সেক্ষেত্রে সালাম দেওয়া থেকে বিরত থাকা কর্তব্য। আর মসজিদে অন্যের ক্ষতি হয় এমন উঁচুস্বরে সালাম দেওয়া সঠিক নয়। ইমাম সাহেবদের দায়িত্ব হলো মানুষকে হিকমত ও প্রজ্ঞার সঙ্গে বিষয়টি বুঝিয়ে দেওয়া। সূত্র: ফাতাওয়া হিন্দিয়া : ৫/৩২৫; আল বাহরুর রায়েক : ৮/২০৭; রদ্দুল মুহতার : ১/৬১৬

মসজিদে প্রবেশের দোয়া – শেষ কথা 

মুসলমানদের জন্য ৫ ওয়াক্ত সালাত আদায় করা ফরজ করা  হয়েছে। মসজিদে গিয়ে   সেই সালাত জামায়াতের সাথে আদায় করার সওয়াব অনেক বেশি। সুতরাং মসজিদে গিয়ে পাঁচ ওয়াক্ত সালাত আদায় করার পাশাপাশি মসজিদে প্রবেশের দোয়া ও মসজিদ থেকে বের হওয়ার দোয়া আমাদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ আমল। আশা করি এই গুরুত্বপূর্ণ আলম আমরা সকলেই ভালোভাবে আদায় করব। 

 

Leave a Comment