ফরেক্স ট্রেডিং শিখুন স্টেপ বাই স্টেপ

ফরেক্স ট্রেডিং শিখুন-আসসালামু আলাইকুম। আশা করি সবাই ভালো আছেন। বর্তমান ডিজিটাল যুগে যারা অনলাইনের মাধ্যমে আয় করার উপায় খুঁজেন তারা সবাই কম বেশি ফরেক্স ট্রেডিং এর নাম শুনে থাকবেন। অনলাইনে ইনকাম করার যতগুলো পদ্ধতি বা উপায় রয়েছে তার মধ্যে ফরেক্স ট্রেডিং অন্যতম। আসলে ফরেক্স ট্রেডিং থেকে টাকা আয় করা যতটা সহজে বলা হয় ততটা সহজ নয়। নতুন কোন ট্রেডার যখন ফরেক্স ট্রেডিং শুরু করেন তখন তাকে অবশ্যই ফরেক্স ট্রেডিং সংক্রান্ত মৌলিক বিষয়গুলো জানতে অথবা শিখতে হবে।

ফরেক্স ট্রেডিং শেখার গুরুত্ব অনুধাবন করতঃ আমাদের আজকের পোষ্টের মূল প্রতিপাদ্য বিষয় হচ্ছে ফরেক্স ট্রেডিং শিখুন তারপর ট্রেডিং করুন। আজকের পোষ্টের মাধ্যমে আমরা জানব ফরেক্স ট্রেডিং কি, ফরেক্স কিভাবে কাজ করে, ফরেক্স ট্রেডিং করতে কি কি প্রয়োজন, ফরেক্স ট্রেডিং শিখুন, ফরেক্স ট্রেডিং এর সুবিধা, ফরেক্স ট্রেডিং এর ঝুঁকি ইত্যাদি সম্পর্কে। তো চলুন শুরু করা যাক-

ফরেক্স ট্রেডিং শিখুন

ফরেক্স ট্রেডিং কি?

ফরেক্স ট্রেডিং হলো বৈদেশিক মুদ্রা লেন-দেন যা সংক্ষেপে ফরেন এক্সচেঞ্জ বা FX নামেও পরিচিত। আপনার মূলধনকে বাড়িয়ে নেওয়ার একটি আকর্ষণীয় মাধ্যম হলো ফরেক্স ট্রেডিং। ব্যাংক ফর ইন্টারন্যাশনাল সেটেলমেন্ট (BIS) দ্বারা 2019 সালের ত্রিবার্ষিক কেন্দ্রীয় ব্যাংক সমীক্ষা অনুসারে, পরিসংখ্যান দেখায় যে FX বাজারে লেনদেন এপ্রিল 2019-এ প্রতিদিন $6.6 ট্রিলিয়ন পৌঁছেছে, যা তিন বছর আগে $5.1 ট্রিলিয়ন লেনদেন থেকেও বেশি।

ফরেক্স ট্রেডিং কিভাবে কাজ করে?

ফরেক্স ট্রেডিং কমোডিটি এবং স্টকের মত বিনিময়ে ঘটে না, বরং এটি একটি ওভার-দ্য-কাউন্টার মার্কেট যেখানে দুটি পক্ষ সরাসরি ব্রোকারের মাধ্যমে ট্রেড করে। ফরেক্স মার্কেট ব্যাংকের নেটওয়ার্কের মাধ্যমে পরিচালিত হয়। চারটি প্রাথমিক ফরেক্স ট্রেডিং সেন্টার হল নিউ ইয়র্ক, লন্ডন, সিডনি এবং টোকিও। আপনি সোমবার থেকে শুক্রবার পর্যন্ত 24 ঘন্টা ট্রেড করতে পারেন। তিন ধরনের ফরেক্স মার্কেট রয়েছে যার মধ্যে রয়েছে স্পট ফরেক্স মার্কেট, ফিউচার ফরেক্স মার্কেট এবং ফরওয়ার্ড ফরেক্স মার্কেট।

বেশিরভাগ ফরেক্স ব্যবসায়ী মুদ্রার দামের উপর অনুমান করে ট্রেড করে না বরঞ্চ তারা বাজারে গতিবিধি পর্যবেক্ষণ করে সেখান থেকে সুবিধা গ্রহনের পরিকল্পনা করে।

ফরেক্স ব্যবসায়ীরা মুনাফা অর্জনের জন্য একটি কারেন্সি পেয়ারের দাম বৃদ্ধি বা কমার বিষয়ে নিয়মিত পেডিক করে। উদাহরণস্বরূপ, EUR/USD জোড়ার বিনিময় হার ইউরো এবং ইউএস ডলারের মধ্যে অনুপাতের মান দেখায়। এটি চাহিদা এবং সরবরাহের মধ্যে সম্পর্ক থেকে উদ্ভব হয়।

ফরেক্স ট্রেডিং করতে কি কি প্রয়োজন

আপনার যদি একটি কম্পিউটার এবং একটি ইন্টারনেট সংযোগ থাকে তবে আপনি ইতিমধ্যেই ফরেক্স ট্রেডিংয়ে অংশগ্রহণের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ মৌলিক বিষয়গুলি পূরণ করতে সক্ষম হয়েছেন।

এখন যেহেতু আপনার কাছে ফরেক্স মার্কেটের প্রয়োজনীয় জ্ঞান আছে তাহলে চলুন আপনি কিভাবে ধাপে ধাপে ফরেক্স ট্রেডিং শিখতে পারেন সেদিকে এগিয়ে যাই।

ফরেক্স ট্রেডিং শিখতে হবে কেন?

অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি প্রশ্ন হলো ফরেক্স ট্রেডিং কেন আমরা শিখব? আসলে শিক্ষা ব্যতিত কোন কিছু কি অর্জন করা কি সম্ভব? না কখনো সম্ভব নয়। আপনি যদি ফরেক্স ট্রেডিং সম্পর্কে ভালোভাবে না জেনে না বুঝে ট্রেড করা শুরু করে দেন তাহলে হয়তো সাময়িক সময়ের জন্য কিছু প্রফিট পেতে পারবেন কিন্তু সেই প্রফিট আপনার বেশীদিন থাকবে না। গ্যারান্টি সহকারে বলা যায়, অল্প কিছুদিনের মধ্যেই আপনার ট্রেডিং অ্যাকাউন্টের ব্যালেন্সের শুন্য হয়ে যাবে।

তাই ফরেক্স ট্রেডিং শুরু করার ভালো করে ফরেক্স সম্পর্কে জানুন। বর্তমানে শেখার জন্য অনেক মাধ্যম আছে সেগুলো ব্যবহার করে আগে শিক্ষুন তারপর ট্রেড করুন । শিক্ষা ব্যতিত ফরেক্স মার্কেট হতে লাভ করা কখনো সম্ভব নয়।

ফরেক্স ট্রেডিং শিখার মাধ্যম

ফরেক্স মার্কেট ব্যবসা করার জন্য একটি ডিজিটাল মার্কেট প্লেস । এখানে এখানে যারা ট্রেড করে তারা সবাই স্মার্ট উপায়ে আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে ট্রেড করে থাকে। ফরেক্স ট্রেডিং শিখার মাধ্যম ও আমরা স্মার্ট উপায়ে অনলাইন থেকে খুঁজে পেতে পারি। চলুন ফরেক্স ট্রেডিং শেখার কয়েকটি মাধ্যম সম্পর্কে জেনে আসি-

গুগল ব্যবহার এর মাধ্যমে

বর্তমানে এমন কোন বিষয় নেই যা গুগল থেকে পাওয়া যায় না। ফরেক্স ট্রেডিং এর ক্ষেত্রেও এর ব্যতিক্রম নয়। ফরেক্স ট্রেডিং সম্পর্কে জানতে আপনি গুগলে সার্চ করে সেখান থেকে সকল তথ্যাদি জেনে নিতে পারেন। তবে বাংলার চেয়ে ইংরেজীতে বেশি তথ্য পাওয়া যায় এবং ইংরেজীতে প্রাপ্ত তথ্যগুলো অনেক বেশী কার্যকর। যদি আপনার ইংরেজী বুঝতে অসুবিধা হয় তাহলে গুগল ট্রান্সলেট ব্যবহার করেও বিষয়গুলো ভালোভাবে বুঝার চেষ্টা করবেন।

ইউটিউব ব্যবহার এর মাধ্যমে

গুগলের ন্যায় ফরেক্স ট্রেডিং শেখার আর একটি জনপ্রিয় মাধ্যম হলো ইউটিউব। ইউটিউবে হাজার হাজার ভিডিও টিউটোরিয়াল রয়েছে ফরেক্স ট্রেডিং শেখার জন্য। আপনি অনায়াসে ইউটিউব থেকে ভিডিও টিউটোরিয়াল দেখে ফরেক্স ট্রেডিং শিখতে পারেন। তবে এখানেও ইংরেজী কন্টেন্ট এর গ্রহনযোগ্যতা বেশি। এছাড়া বাংলা ভাষায় ও কিছু কিছু ভালো চ্যানেল আছে সেখান থেকেও ধারণা পেতে পারেন।

বই এর মাধ্যমে

প্রাচীন কাল থেকে শিক্ষা গ্রহনের জন্য বই এর কোন বিকল্প নেই। বই পড়ার মাধ্যমে ফরেক্স সম্পর্কে যাবতীয় বিষয়গুলি শিখতে পারবেন। ফরেক্স ট্রেডিং ভালো বই বেশির ভাগই ইংরেজীতে লেখা এবং এই বই গুলো সাধারণত জেলা শহরের লাইব্রেরীতে পাওয়া যায় না। তাই অনলাইনে অর্ডার করে সেখান থেকে সংগ্রহ পূর্বক পড়তে পারেন।

ট্রেনিং সেন্টারের মাধ্যমে

আমাদের দেশে কিছু কিছু ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান অনলাইনের মাধ্যমে ফরেক্স ট্রেডিং শিখিয়ে থাকে। তাদের কাছ থেকে অনলাইনের মাধ্যমে নির্দিষ্ট ফি দিয়ে কোর্স করতে পারেন। কোর্স এর মাধ্যমে সেখান থেকে প্রয়োজনীয় বিষয় গুলি ভালো ভাবে শিখে নেন। তবে অনলাইনে কোর্স করার ক্ষেত্রে ভালোভাবে যাচাই বাছাই করে কোন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের কাছে কোর্স করবেন তা সিলেক্ট করুন। আশা করি ফরেক্স ট্রেডিং শেখার মাধ্যম সম্পর্কে ধারনা পেয়েছেন।

ফরেক্স ট্রেডিং শিখুন

হ্যালো ভিউয়ারস আমাদের আজকের পোষ্টের মুল বিষয় এখন আলোচনা করব সেটা হলো ফরেক্স ট্রেডিং শিখুন। ফরেক্স ট্রেডিং শিখতে হলে আমাদের কিছু ধাপ এবং ফরেক্স মার্কেটের কিছু মৌলিক বিষয় জানতে হবে। তো চলুন পর্যায়ক্রমে আমরা সগুলো জেনে নেই-

ফরেক্স ট্রেডিং এর ধাপ

প্রকৃত ট্রেডিং শুরু করার আগে, আপনাকে প্রথমে কিছু কৌশল এবং বিষয় সম্পর্কে ধারণা লাভ করতে হবে। এটাই ফরেক্স ট্রেডিং এর প্রাথমিক শিক্ষনীয় বিষয় হিসেবে কাজে দিবে।

১। সঠিক ব্রোকার নির্বাচন করা

ফরেক্স ট্রেডিংয়ে সঠিক ব্রোকার বাছাই করা হলো সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ধাপ কারণ আপনি একজন ব্রোকার ছাড়া অনলাইন ট্রেডিং করতে পারবেন না এবং একটি ভুল ব্রোকার বেছে নিলে আপনার ট্রেডিং ক্যারিয়ারে সত্যিই খারাপ অভিজ্ঞতা হতে পারে।

ব্রোকার বাছায়ের ক্ষেত্রে নিশ্চিত হতে হবে যে কম সার্ভিস চার্জ, একটি চমৎকার ইউজার ইন্টারফেস এবং সর্বোপরি একটি ডেমো অ্যাকাউন্ট এর মাধ্যমে ট্রেড করার সুযোগ প্রদান করবে।

ডেমো একাউন্ট এর মাধ্যমে ট্রেড করার মাধ্যমে আপনি আপনার নির্বাচিত ব্রোকার হাউজের সেবার মান সম্পর্কে জানতে পারবেন। তাদের সফটওয়ার এর গতি, স্টাফদের ব্যবহার সর্বোপরি বিনিয়োগ বান্ধব পরিবেশ আছে কিনা তা বুঝতে সক্ষম হবেন।

২। প্রয়োজনীয় পদ জানুন

ফরেক্স ট্রেডিং শুরু করার আগে আপনাকে নির্দিষ্ট কিছু ট্রেডিং শর্তাবলী সম্পর্কে জানতে হবে। নিচে কিছু ট্রেডিং সংক্রান্ত পদ বা বাক্যাংশগুলি উল্লেখ করা হলো যা আপনার জানা উচিৎ।

– এক্সচেঞ্জ রেট বা বিনিময় হার

কারেন্সি পেয়ার এর বর্তমান বাজার মূল্যকে এক্সচেঞ্জ রেট বা বিনিময় হার বলে।

– অকশন পোষ্ট বা নিলাম – ডাক

এটি এমন একটি মূল্য যেখানে FXCC (বা অন্য কাউন্টার পার্টি) একটি ক্লায়েন্টের কাছ থেকে কারেন্সী পেয়ার জোড়া কেনার প্রস্তাব দেয়। এটি হল মূল্য যা ক্লায়েন্টকে উদ্ধৃত করা হবে যখন একটি ট্রেড বিক্রি করতে চান ।

– আস্ক প্রাইজ

এটি সেই মূল্য যা মুদ্রা, বা উপকরণ FXCC (বা অন্য কাউন্টার পার্টি) দ্বারা বিক্রয়ের জন্য দেওয়া হয়। জিজ্ঞাসা বা অফার মূল্য হল কার্যকরভাবে যে মূল্য একজন ক্লায়েন্টকে উদ্ধৃত করা হবে যখন একটি অবস্থান কিনতে চান।

– কারেন্সি পেয়ার বা মুদ্রা জোড়া

কারেন্সি পেয়ার সব সময় জোড়ায় জোড়ায় লেনদেন হয়, যেমন, EUR/USD। প্রথম মুদ্রা হল বেস কারেন্সি, এবং দ্বিতীয় মুদ্রা হলো কোট কারেন্সি। এটি বেস কারেন্সি কিনতে কতটা কোট কারেন্সি প্রয়োজন তা দেখা যায়।

–  স্প্রেড

বিড এবং আস্ক মূল্যের মধ্যে পার্থক্যকে স্প্রেড বলা হয়।

– পূর্বাভাস

পূর্বাভাস হলো বর্তমান চার্টের অবস্থান দেখে ভবিষ্যদ্বাণী করা হয় যে বাজার পরবর্তীতে কোন দিকে যাবে দাম বাড়বে না কমবে।

– কমিশন/ফি

FXCC-এর মতো একজন ব্রোকার প্রতি ট্রেডে যে ফি নিতে পারে সেটাই হলো কমিশন/ফি।

– মার্কেট অর্ডার

মার্কেট অর্ডার হলো বর্তমান মূল্যের উপর ভিত্তি করে কোন ধরনের ট্রেড এর ক্রয় বা বিক্রয় আদেশ দেয়া, যাতে দ্রুত ট্রেডটি কার্যকর করা সম্ভব হয়।

– লিমিট অর্ডার

কোন কারেন্সি পেয়ার ক্রয় বা বিক্রয় করার জন্য ট্রেডার একটি মূল্য নির্ধারণ করে দিতে পারেন সেই মূল্য নির্ধারণ করে দেয়াকে লিমিট অর্ডার বলে। এটি নির্দিষ্ট মূল্য ট্রেড করার পরিকল্পনা করতে সাহায্য করে এবং অতিরিক্ত মূল্যে ক্রয় বা খুব সস্তা দাম বিক্রি করা এড়াতে সাহায্য করে।

– স্টপ-লস অর্ডার

স্টপ-লস অর্ডারের মাধ্যমে, যদি দাম বিপরীত দিকে যায় তবে ট্রেডার একটি ট্রেডে ক্ষতি কমাতে পারে। যখন একটি মুদ্রা জোড়ার মূল্য একটি নির্দিষ্ট মূল্য স্তরে পৌঁছায় তখন অর্ডারটি সক্রিয় হয়৷ ট্রেডার একটি ট্রেড খোলার সময় একটি স্টপ-লস স্থাপন করতে পারে বা এটি ট্রেড খোলার পরেও স্থাপন করা যেতে পারে। স্টপ-লস অর্ডার হল ঝুঁকি ব্যবস্থাপনার অন্যতম মৌলিক হাতিয়ার।

– লিভারেজ

ফরেক্স মার্কেটে ট্রেডারদের কাছে মুলধন একটি বড় ফ্যাক্টর। এই মুলধন সংগ্রহের উদ্দেশ্যে ফরেক্স ট্রেডারগণ ব্রোকার হাউজে যে পরিমাণ মুলধন জমা করে তার চেয়ে বেশি পরিমাণ টাকার ট্রেড করে থাকে। এই বেশি পরিমাণ টাকা দিয়ে ট্রেড করাকে লেভারেজ বলে। লেভারেজ এর পরিমাণ বেশি হলে তার দ্বারা মার্কেট প্রভাবিত হয়। লেভারেজ এর কারণে সম্ভাব্য লাভ বহুগুণ বেড়ে যায়, কিন্তু লাভের হলেও ঝুঁকিও উল্লেখযোগ্যভাবে বৃদ্ধি পায়।

– মার্জিন

কারেন্সি ট্রেডিং করার ক্ষেত্রে ব্যবহারের উদ্দেশ্যে ভিন্ন কোন একাউন্টে টাকা জমা করে রাখাকে মার্জিন বলে। মার্জিনে রক্ষিত অর্থ ব্রোকার হাউজগুলিকে আর্থিকভাবে সচ্ছল রাখতে সহায়তা করে। তাছাড়া ট্রেডার এর শর্ত ও বাধ্য বাধকতা পুরণে সক্ষম হওয়ার ক্ষেত্রে মার্জিন বিশাল ভুমিকা পালন করে।

– পিপ

পিপ ফরেক্স ট্রেডিং এর একটি মৌলিক ইউনিট। এটি একটি মুদ্রা জোড়ার দামের পরিবর্তন নির্দেশ করে। পিপ হলো একটি পরিমাপের একক যা দুইটি কারেন্সির মধ্যকার পার্থক্যকে পরিমাপ করে। মনে করুন, EUR/USD কারেন্সি পেয়ার এর মান 1.2050 প্রাইস থেকে 1.2051 প্রাইসে পরিবর্তিত হলো। এর মানে, এই কারেন্সি পেয়ারে . 0001 USD বৃদ্ধি পেয়েছে অর্থাৎ এর ভ্যালু বেড়েছে ১ পিপ ।

– লট

পূর্বে ফরেক্সে শুধুমাত্র একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ ট্রেড করার সুযোগ ছিল। এই নির্দিষ্ট পরিমাণই হলো “লট/Lot”। আরও সহজ করে বলা যায়, ফরেক্স ট্রেড করার জন্য আপনি কারেন্সি পেয়ারের যেই ইউনিট কিংবা পরিমান বাই/সেল করার জন্য নির্ধারণ করেন, সেই ইউনিট বা পরিমাণকেই লট বলা হয় ।

– ভলিউম

ভলিউম হল একটি নির্দিষ্ট কারেন্সি পেয়ারের মোট ট্রেডিং কার্যকলাপের পরিমাণ। কখনও কখনও এটি দিনের বেলায় মোট চুক্তির সংখ্যা হিসাবেও বিবেচিত হয়।

– গোয়িং লং

“গোয়িং লং” মানে সেই কারেন্সি পেয়ারের দাম বৃদ্ধির আশায় একটি কারেন্সি পেয়ার কেনা। মূল্য প্রবেশ মূল্যের উপরে উঠলে অর্ডারটি লাভজনক হয়।

– স্ট্যান্ডার্ড অ্যাকাউন্ট

স্ট্যান্ডার্ড একাউন্টকে সাধারণ একাউন্ট হিসাবে গন্য করা হয়। সাধারণত বেশি পরিমাণ ডলার দিয়ে ট্রেড করার জন্য এই একাউন্ট ব্যবহার করা হয়। এই টাইপের একাউন্ট দিয়ে ১০০০০০ ডলার অব্দি ট্রেড করা যায়।

– মিনি লট অ্যাকাউন্ট

একটি মিনি লট অ্যাকাউন্ট ফরেক্স ট্রেডারদের মিনি-লট ট্রেড করতে দেয়। অর্থাৎ এই একাউন্ট দিয়ে সর্বোচ্চ ১০০০০ ডলার অব্দি ট্রেড করা যায়। এর চেয়ে বেশি ডলারের ট্রেড এই টাইপের একাউন্ট দিয়ে সম্ভব নয়।

– মাইক্রো লট অ্যাকাউন্ট

একটি মাইক্রো লট অ্যাকাউন্ট ফরেক্স ব্যবসায়ীদের মাইক্রো-লট ট্রেড করতে দেয়। অর্থাৎ এই একাউন্ট দিয়ে এক হাজার ডলার অব্দি ট্রেড করা যায়। এর চেয়ে বেশী ডলারের ট্রেড এই একাউন্ট দিয়ে করা যায় না।

– মিরর ট্রেডিং

মিরর ট্রেডিং হলো ট্রেডারদের স্বয়ংক্রিয়ভাবে অন্য সফল ট্রেডারদের একটি নির্দিষ্ট ফি দিয়ে ট্রেড কপি করার অনুমতি দেয়।

– স্লিপেজ

প্রকৃত ফিল প্রাইস এবং প্রত্যাশিত ফিল প্রাইসের মধ্যে পার্থক্যকে স্লিপেজ বলা হয়। স্লিপেজ সাধারণত ঘটে যখন বাজার হাইলি ভলাটাইল হয়।

– স্কাল্পিং

Scalping হলো একটি স্বল্পমেয়াদী ট্রেডিং শৈলী। একটি ট্রেড খোলা এবং বন্ধের মধ্যে সময়কাল কয়েক সেকেন্ড থেকে কয়েক মিনিটের মধ্যে পরিবর্তিত হতে পারে।

ফরেক্স ট্রেডিং শিখুন-FAQ

ফরেক্সে বিনিয়োগ করা কি নিরাপদ?

যেকোনো উদ্যোগের মতো, ফরেক্স ট্রেড করার সময় সর্বদা ক্ষতির ঝুঁকি থাকে। আপনাকে অবশ্যই একটি উপযুক্ত ফরেক্স ট্রেডিং কৌশল সেট আপ করতে হবে যা আপনার ট্রেডিং ব্যক্তিত্বের সাথে মিলে যায়। যারা বিজ্ঞতার সাথে বিনিয়োগ করে তারা ফরেক্স ট্রেডিং থেকে উচ্চ আয় অর্জন করতে পারে।

ফরেক্স ট্রেডিং এর জন্য সেরা প্ল্যাটফর্ম কি?

প্ল্যাটফর্মের নির্বাচন খুবই বিষয়ভিত্তিক এবং এটি আলাদা আলাদা ট্রেডারদের তাদের ট্রেডিং প্রয়োজনীয়তার উপর নির্ভর করে ফরেক্স ট্রেডিং প্লাটফর্ম ভিন্ন রকম হয়ে থাকে। কিছু সুপরিচিত ফরেক্স ট্রেডিং প্ল্যাটফর্মের মধ্যে রয়েছে মেটাট্রেডার 4 এবং মেটাট্রেডার 5। যদিও সমস্ত ট্রেডিং প্ল্যাটফর্ম বিনামূল্যে নয়। একটি মাসিক ফি প্রদানের মাধ্যমে কিছু কিছু প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করা যায়।

ফরেক্স ট্রেডিং এ সফল হওয়া কতটা কঠিন?

এতে কোন সন্দেহ নেই যে ফরেক্স ট্রেডিং এর মাধ্যমে অর্থ উপার্জন করতে প্রচুর অনুশীলন করতে হয়। সঠিক কারেন্সি পেয়ার বেছে নেওয়ার পাশাপাশি, একজন সফল ফরেক্স ট্রেডার হওয়ার জন্য নিরন্তর প্রশিক্ষণ অপরিহার্য।

ফরেক্স ট্রেডিং শিখুন সম্পর্কে শেষ কথা

আজকের পোষ্টের আলোচ্য বিষয় ছিলো ফরেক্স ট্রেডিং শিখুন ধাপে ধাপে। পোষ্টটিতে ফরেক্স ট্রেডিং শেখার ব্যাপারে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে। আশা করি সঠিক ভাবে ফরেক্স ট্রেডিং শিখে অনলাইনে ফরেক্স ট্রেডিং করে অধিক মুনাফা অর্জন করতে সক্ষম হবেন। আজকে এই পর্যন্ত। ভালো থাকবেন সবাই।

আরও পড়ুন-

ফরেক্স ট্রেডিং কিভাবে করে?

ফরেক্স ট্রেডিং বাংলাদেশে কি বৈধ?

Leave a Comment