টিকটক থেকে টাকা ইনকাম করার উপায়

টিকটক থেকে টাকা ইনকাম করার উপায় সম্পর্কে জানলে, এখন থেকে আপনিও টিকটক ব্যবহার করে ভিডিও বানিয়ে টাকা আয় করতে পারবেন। টিকটক সম্পর্কে তো নিশ্চয়ই শুনেছেন। অনেকেই টিকটক এ ভিডিও বানায়। অনেকেই টিকটক থেকে ভিডিও বানিয়ে টাকা উপার্জন করছে। তাহলে আপনি কেন নয়? আজকের এই পোস্টটি পড়লে টিকটক থেকে টাকা ইনকাম করার পদ্ধতি সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবেন। তো চলুন, শুরু করা যাক।

আলোচ্য বিষয়াবলী

টিকটক কি?

টিকটক হচ্ছে একটি ভিডিও শেয়ারিং প্ল্যাটফর্ম। যেখানে আপনি ১৫ সেকেন্ডের ভিডিও শেয়ার করতে পারবেন। আগের তৈরি করা ভিডিও শেয়ার করার পাশাপাশি টিকটকে ভিডিও বানিয়ে সেগুলো এডিট করেও শেয়ার করা যায়। টিকটক হচ্ছে একটি চাইনিজ কোম্পানি। টিকটক এর ভিডিও থেকেই ইউটিউব শর্টস, ফেসবুক রিলস এর আগমন।

টিকটক থেকে টাকা ইনকাম

টিকটক থেকে টাকা ইনকাম
টিকটক থেকে টাকা ইনকাম

অনেকেই টিকটক শুধুমাত্র বিনোদন এর মাধ্যম হিসেবে গ্রহণ করেছেন। অপরদিকে, কেউ আবার টিকটক থেকে টাকা ইনকাম করছে। আপনি যদি টিকটকে ভিডিও দেখার পাশপাশি কিছু ভিডিও আপলোড করতে পারেন, তবে সেই ভিডিও থেকেই টাকা উপার্জন করতে পারবেন। এখন অব্দি, টিকটক থেকে ইনকাম করার কয়েকটি উপায় রয়েছে। এগুলো হচ্ছে –

  • প্রোডাক্ট বিক্রি করে
  • অ্যাফিলিয়েট প্রোগ্রাম
  • আর্টিস্ট প্রোমোট করে
  • টিকটক ক্রিয়েটর ফান্ড
  • টিকটক একাউন্ট মনিটাইজেশন করে

আমরা চাইলে যেকোনো প্ল্যাটফর্ম থেকেই টাকা ইনকাম করতে পারবো। এজন্য প্রয়োজন একটি বুদ্ধি খাটানো। টিকটক সম্পর্কে অনেক নেগেটিভ রিভিউ শুনে থাকবেন। কিন্তু, সব প্লাটফর্মের ভালো দিক রয়েছে। আমরা যদি ভালো দিকটি গ্রহণ করতে পারি, তবে সেখানে থেকেই অনেক সম্ভাবনাময় কিছু করা সম্ভব। তেমনি, আমরা চাইলে টিকটক থেকে টাকা ইনকাম করতে পারি।

উপরোক্ত সবগুলো পদ্ধতিতে আপনি টিকটক থেকে ভিডিও বানিয়ে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। ইউটিউব এর মতো এখানে অনেক বড় ভিডিও বানাতে হবে না, তবে পরিমাণ একটু বেশি হতে হবে। আপনি টিকটক দিয়ে ভিডিও বানাতে বানাতে যখন একটি ভিডিও ভাইরাল হয়ে যাবে, তখন আপনার প্রোফাইল এর ফলোয়ার বৃদ্ধি পাবে। এরপর থেকেই টাকা ইনকাম করা শুরু করতে পারবেন। চলুন আরেকটু বিস্তারিত আলোচনা করা যাক।

প্রোডাক্ট বিক্রি করে টাকা ইনকাম

শুনতে একটু অবিশ্বাস্য হতেই পারে। তবে, আপনি হয়তো টিকটক এ এমন ভিডিও দেখেছেন, যেখানে মানুষ বিভিন্ন পন্য বিক্রি করছে। আপনার যদি কোনো ই-কমার্স বা এফ-কমার্স শপ থাকে, তবে আপনার শপের কিংবা আপনার ফিজিক্যাল শপ এর পন্য টিকটক এ বিক্রি করতে পারবেন। এজন্য, আপনাকে আপনার পন্যগুলোর ভিডিও তৈরি করতে হবে। এরপর, এসব ছোট ভিডিও টিকটকে আপলোড করতে হবে।

টিকটক ব্যবহার করে এমন অনেক মানুষ রয়েছে আমাদের দেশে। তাহলে একবার ভেবে দেখুন, কোনো টাকা খরচ না করেই কত মানুষের কাছে আপনার পন্যের বিজ্ঞাপন দিতে পারছেন। টিকটক ব্যবহার করে ভিডিও বানানোর মাধ্যমে আপনার পন্যের ভিডিও অনেকেই দেখবে। এরপর, তারা আপনার পন্য অর্ডার করলে আপনি সেসব পন্য বিক্রি করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

আরও পড়ুন – অনলাইনে লোন পাওয়ার উপায়

কিংবা, আপনার টিকটক একাউন্ট এ যদি ভালো পরিমাণে ফলোয়ার থাকে, তবে আপনি নিজের কিংবা অন্য কারও পন্যের বিজ্ঞাপন দিয়েও টাকা উপার্জন করতে পারবেন। আপনি হয়তো লক্ষ্য করেছেন, ফেসবুক এবং ইউটিউব এ অনেক কন্টেন্ট ক্রিয়েটর বিভিন্ন পন্যের বিজ্ঞাপন দেয় তাদের ভিডিওর মাধ্যমে। আপনার যদি টিকটক একাউন্ট এ ভালো ফলোয়ার থাকে, তবে আপনিও অন্যদের পন্যের বিজ্ঞাপন দেয়ার মাধ্যমে টাকা উপার্জন করতে পারবেন।

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে টাকা ইনকাম

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং তা নিশ্চয়ই জানেন। যদি না জেনে থাকেন, অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর মাধ্যমে কোনো ই-কমার্স সাইটের পন্য বিক্রি করে টাকা ইনকাম করা হয়। অর্থাৎ, আপনি কোনো ই-কমার্স ওয়েবসাইটে একটি অ্যাফিলিয়েট প্রোগ্রামে অংশগ্রহন করার পর একটি লিংক পাবেন। এরপর, সেই লিংক অন্যদের সাথে শেয়ার করবেন। কেউ যদি আপনার লিংক দিয়ে ঢুকে কোনো পন্য ক্রয় করে, তবে আপনি নির্দিষ্ট পরিমাণে টাকা বোনাস পাবেন। এভাবে করে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করা হয়।

আপনি যদি একজন টিকটকার হন, তবে টিকটকে যেকোনো ই-কমার্স ওয়েবসাইটের পন্যের রিভিউ করে সেই পন্য ক্রয় করার লিংক কমেন্ট বক্স বা ডেসক্রিপ্শন এ দিলে, অন্যরা যদি সেই লিংক ব্যবহার করে কোনো পন্য ক্রয় করে, তবে আপনি নির্দিষ্ট পরিমাণে টাকা পাবেন। এভাবে করে অনেকেই ফেসবুক এবং ইউটিউব এ ভিডিও বানিয়ে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে টাকা উপার্জন করে।

আরও পড়ুন – Google থেকে টাকা ইনকাম করার উপায়

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে টাকা ইনকাম করার জন্য অনেকেই ওয়েবসাইট তৈরি করে থাকে। কিন্তু, আপনি ফ্রিতেই টিকটকে ভিডিও বানিয়ে সেখানে থেকে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে টাকা উপার্জন করতে পারবেন। অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে টিকটক থেকে টাকা ইনকাম করার উপায় সম্পর্কে নিশ্চয়ই জানতে পেরেছেন। তো চলুন, আর্টিস্ট প্রোমোট করে টাকা ইনকাম করার উপায় জেনে নেয়া যাক।

আর্টিস্ট প্রোমোট করে

আপনার টিকটক একাউন্টের ভিডিও যদি অনেক ভিউ হয়, আপনার একাউন্টে যদি অনেক ফলোয়ার থাকে, তবে অন্য কারও টিকটক একাউন্ট প্রোমোট করে টাকা ইনকাম করতে পারেন। অনেকেই চায় তাদের টিকটক একাউন্টে অনেক ফলোয়ার হোক, তাই তারা অন্যদের থেকে তাদের একাউন্ট প্রোমোট করিয়ে নেয়। আপনি চাইলে এদের টিকটক একাউন্ট প্রোমোট করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

আর্টিস্ট এর পরিবর্তে আপনি চাইলে যেকোনো প্রতিষ্ঠান, ওয়েবসাইট, পন্য কিংবা সেবা প্রোমোট করতে পারেন। এতে করে টিকটক থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। আপনার টিকটক একাউন্ট শুধু বিনোদন এর মাধ্যম হিসেবে ব্যবহার না করে, এখন থেকে টিকটক থেকে টাকা উপার্জন করা শুরু করে দিন।

টিকটক একাউন্ট মনিটাইজেশন করে

ফেসবুক পেজ, ফেসবুক একাউন্ট, ইউটিউব চ্যানেল, টুইটার একাউন্ট যেমন মনিটাইজেশন এর আওতায় আনা যায়, তেমনি করে আপনি চাইলে টিকটক একাউন্ট মনিটাইজেশন করে সহজেই টাকা ইনকাম করতে পারবেন। টিকটক সম্প্রতি তাদের নতুন ফিচার, টিকটক থেকে টাকা ইনকাম করার পদ্ধতি লঞ্চ করেছে। এর মাধ্যমে, যে কেউ টিকটক থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবে। এজন্য, আপনাকে টিকটক এর মনিটাইজেশন শর্ত মেনে নির্দিষ্ট পরিমাণ ফলোয়ার পেতে হবে এবং আপনার ভিডিওতে পর্যাপ্ত পরিমাণ ভিউজ থাকতে হবে।

তবে, আপনি টিকটক একাউন্ট মনিটাইজেশন এর জন্য আবেদন করে সহজেই অনুমোদন নিয়ে টাকা উপার্জন করতে পারবেন। অতঃপর, আপনার ভিডিও মানুষ দেখলে, আপনি সেখানে থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। এবং, উক্ত উপার্জিত টাকা প্রতি মাসেই উত্তোলন করে নিতে পারবেন।

টিকটক ক্রিয়েটর ফান্ড থেকে টাকা ইনকাম

টিকটক ক্রিয়েটর ফান্ড থেকে কত টাকা আয় করা যায় তা নির্ভর করে আপনার ভিডিওতে কতটা সংখ্যক ভিউ, লাইক এবং কমেন্ট আছে। সাধারণত, প্রতি ১০০০ ভিউতে ১-৩ ডলার আয় করা যায়। তবে, যদি আপনার ভিডিও খুব জনপ্রিয় হয় এবং অনেক ভিউ পায়, তাহলে আপনি আরও বেশি টাকা আয় করতে পারেন।

টিকটক ক্রিয়েটর ফান্ড থেকে টাকা আয় করার জন্য, আপনাকে অবশ্যই কিছু শর্ত পূরণ করতে হবে। এগুলো হচ্ছে-

  1. আপনার অবশ্যই টিকটকে ১০,০০০ এর বেশি ফলোয়ার এবং ১০০,০০০ এর বেশি ভিউ থাকতে হবে।
  2. আপনার অবশ্যই টিকটকের কমিউনিটি গাইডলাইনস মেনে চলতে হবে।

যদি আপনি এই শর্তগুলি পূরণ করেন, তাহলে আপনি টিকটক ক্রিয়েটর ফান্ডের জন্য আবেদন করতে পারেন। আবেদন প্রক্রিয়াটি খুব সহজ। আপনাকে টিকটকের ওয়েবসাইটে গিয়ে আবেদন ফর্মটি পূরণ করতে হবে। আবেদন ফর্মটি পূরণ করার পরে, আপনাকে আপনার টিকটক অ্যাকাউন্টের সাথে সংযুক্ত করতে হবে।

আপনার আবেদনটি টিকটক থেকে রিভিউ করে অনুমোদন দিলে, আপনি টিকটক ক্রিয়েটর ফান্ড থেকে টাকা আয় করা শুরু করতে পারেন। টাকাগুলি আপনার টিকটক অ্যাকাউন্টে জমা হবে এবং আপনি চাইলে সেগুলো যেকোনো মাধ্যমে উত্তোলন করে নিতে পারবেন।

আমাদের শেষ কথা

আজকের এই পোস্টে আপনাদের সাথে টিকটক থেকে টাকা ইনকাম করার উপায় শেয়ার করেছি। আশা করছি, এই পোস্টে উল্লেখ করে দেয়া পদ্ধতিগুলো অনুসরণ করে আপনিও এখন থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। এমন আরও পোস্ট পড়তে আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করুন।

Leave a Comment