আয়াস নামের অর্থ কি? আয়াস নামের ইসলামিক অর্থ জেনে নিন

আয়াস নামের অর্থ কি এবং আয়াস নামের ইসলামিক অর্থ কি এসব বিষয় নিয়ে আজকের এই পোস্টে আপনাদের সাথে বিস্তারিত আলোচনা করবো। আপনি যদি আয়াস নামটি আপনার সন্তানের জন্য রাখতে চান এবং এই নামটির অর্থ না জেনে থাকেন অথবা আপনার নাম যদি আয়াস হয়ে থাকে এবং আপনি আপনার নামের অর্থ না জেনে থাকেন, তবে এই পোস্টটি সম্পূর্ণ পড়ুন। আয়াস নামের ইসলামিক অর্থ এবং আ দিয়ে ছেলেদের ইসলামিক নামের অর্থ নিয়ে আরও বিস্তারিত পাবেন এই পোস্টে।

প্রতিটি মুসলিম মানুষের উচিত তার সন্তানের জন্য ইসলামিক নাম রাখা। আপনার সন্তান জন্ম নিলে তার আকিকা করার সময় অবশ্যই একটি ইসলামিক নাম রাখতে হবে। ইসলামিক নাম অর্থ সহ খুঁজে না পেয়ে থাকলে এই পোস্টে অনেক নামের অর্থ পেয়ে যাবেন। তো চলুন, পোস্টের মূল বিষয়ে ফিরে আসা যাক।

আয়াস নামের অর্থ কি

আয়াস নামের অর্থ কি
আয়াস নামের অর্থ কি

আয়াস নামের অর্থ হচ্ছে ক্লান্তি, শ্রান্তি; ক্লেশ, শ্রম, প্রযত্ন, চেষ্টা, পরিশ্রম ইত্যাদি। আয়াস একটি ইসলামিক নাম। আমাদের দেশের এবং মুসলিম বিশ্বের অনেকেই তার সন্তানের নাম আয়াস রাখতে পছন্দ করে থাকেন। কারণ, আয়াস নামটির অনেক সুন্দর অর্থ রয়েছে। আপনার নাম যদি আয়াস হয়ে থাকে, তবে এই নামের অর্থ ইতোমধ্যে জেনে গেছেন। অনেকেই আমরা নিজেদের নামের অর্থ জানি না। কিন্তু , আমাদের সবার উচিত নিজেদের নামের অর্থ জেনে রাখা।

আয়াস নামটি একটি ইসলামিক নাম এবং এই নামের অর্থ হচ্ছে ক্লান্তি, শ্রান্তি; ক্লেশ, শ্রম, প্রযত্ন, চেষ্টা, পরিশ্রম। তাই, আপনি যদি আপনার সন্তানের জন্য একটি ইসলামিক নাম খুঁজে থাকেন, তবে অবশ্যই এই নামটি আপনার সন্তানের জন্য বাছাই করতে পারেন। সুন্দর নাম এবং সুন্দর অর্থ রয়েছে এমন ইসলামিক নাম অনেক কম খুঁজে পাওয়া যায়। তাই, আয়াস নামটি আপনার ছেলে সন্তানেরর জন্য সেরা একটি পছন্দ হবে বলে আমি মনে করছি।

আয়াস নামের ইসলামিক অর্থ কি

আয়াস নামটি হচ্ছে ছেলেদের ইসলামিক নাম। আয়াস নামের ইসলামিক অর্থ হচ্ছে ক্লান্তি, শ্রান্তি; ক্লেশ, শ্রম, প্রযত্ন, চেষ্টা, পরিশ্রম। ছেলেদের ইসলামিক নাম খুঁজে থাকলে , আয়াস নামটি বাছাই করতে পারেন। আয়াস নামের অনেক সুন্দর ইসলামিক অর্থ রয়েছে। আপনার সন্তানের আকিকা করার পর তার জন্য সুন্দর এই ইসলামিক নামটি বাছাই করে নামকরণ করতে পারেন।

আরও পড়ুন – আরিব নামের অর্থ কি? আরিব নামের ইসলামিক অর্থ জেনে নিন

ছেলে সন্তান জন্ম নিলে তার জন্য অবশ্যই ছেলেদের ইসলামিক নাম অর্থসহ খুঁজে বের করে তা দিয়ে আকিকা করে নাম রাখতে হবে। আয়াস নামটি যদি আপনার পছন্দ হয়, তবে এই নাম দিয়েই আপনার সন্তানের আকিকা করতে পারেন। এছাড়াও, নিচে আপনাদের জন্য আ দিয়ে ছেলেদের ইসলামিক নাম অর্থসহ তালিকা উল্লেখ করে দিয়েছি। এই তালিকা থেকে আপনার সন্তানের জন্য একটি ইসলামিক নাম খুঁজে বের করে নিয়ে তা দিয়ে আপনার সন্তানের আকিকা করতে পারেন। তো চলুন, আ দিয়ে ছেলেদের ইসলামিক নামের তালিকা অর্থসহ দেখে নেয়া যাক।

আ দিয়ে ছেলেদের ইসলামিক নাম অর্থসহ

অ্য দিয়ে ছেলেদের অনেক ইসলামিক নাম রয়েছে। আপনার ছেলে সন্তান জন্ম নিলে তার জন্য অবশ্যই একটি ইসলামিক নাম রাখতে হবে। ছেলে শিশুর ইসলামিক নামের অর্থসহ তালিকা নিচে পেয়ে যাবেন।

  • আদম – নামের অর্থ – মাটির সৃষ্টি।
  • আদেল – নামের অর্থ – ন্যায়পরায়ন।
  • আহদাম – নামের অর্থ – একজন বুজুর্গ ব্যক্তির নাম।
  • আদীব – নামের অর্থ – ন্যায় বিচারক।
  • আদিল – নামের অর্থ – ন্যায়বান।
  • আদিল আহনাফ – নামের অর্থ – ন্যায়পরায়ন ধার্মিক।
  • আফিয়া মাদেহা – নামের অর্থ – পুণ্যবতী প্রশংসাকারিনী।
  • আফতাব হুসাইন – নামের অর্থ – সুন্দর চন্দ্র।
  • আফতাবুদ্দীন – নামের অর্থ – দ্বীনের মহান ব্যক্তিত্ব।
  • আফজাল – নামের অর্থ – অতি উত্তম।
  • আফজাল আহবাব – নামের অর্থ – দয়ালু অতি উত্তম বন্ধু।
  • আহনাফ রাশিদ – নামের অর্থ – ধর্মবিশ্বাসী পথ প্রদর্শক।
  • আহকাম – নামের অর্থ – অত্যন্ত শক্তিশালী।
  • আহমেদ – নামের অর্থ – প্রশংসিত।
  • আহমাদ আওসাফ – নামের অর্থ – অতি প্রশংসনীয় গুনাবলী।
  • আহমাদ হুসাইন – নামের অর্থ – সুন্দর মহত্ত্ব।
  • আহমাদুল হক – নামের অর্থ – যথার্থ প্রশংসিত।
  • আহমাম আবরেশমা – নামের অর্থ – লাল বর্নেরসিল্ক।
  • আবদুল্লাহ – নামের অর্থ – আল্লাহর দাস।
  • আবদুল আলি – নামের অর্থ – মহানের গোলাম।
  • আবদুল আলিম – নামের অর্থ – মহাজ্ঞানীর গোলাম।
  • আবদুল আযীম – নামের অর্থ – মহাশ্রেষ্ঠের গোলাম।
  • আবদুল আযীয – নামের অর্থ – মহাশ্রেষ্ঠের গোলাম।
  • আশা – নামের অর্থ – সুখী জীবন।
  • আশিকুল ইসলাম – নামের অর্থ – ইসলামের বন্ধু।
  • আবাদ – নামের অর্থ – অনন্ত কাল।
  • আব্বাস – নামের অর্থ – সিংহ।
  • আবদুল বারী – নামের অর্থ – সৃষ্টিকর্তার গোলাম।
  • আয়মান আওসাফ – নামের অর্থ – নির্ভীক গুনাবলী।
  • আইউব – নামের অর্থ – একজন নবীর নাম।
  • আজম – নামের অর্থ – শ্রেষ্ঠতম।

আরও পড়ুন – নাফিয়ান নামের অর্থ কি? নাফিয়ান নামের ইসলামিক অর্থ জেনে নিন

  • এজাজুল হক – নামের অর্থ – প্রকৃত অলৌকিকতা।
  • আযহার – নামের অর্থ – সুস্পষ্ট।
  • আজীমুদ্দীন – নামের অর্থ – দ্বীনের মুকুট।
  • আজিজ – নামের অর্থ – ক্ষমতাবান।
  • আজীজ আহমদ – নামের অর্থ – প্রশংসিত নেতা।
  • আজিজুল হক – নামের অর্থ – প্রকৃত প্রিয় পাত্র।
  • আজীজুল ইসলাম – নামের অর্থ – ইসলামের কল্যাণ।
  • আজিজুর রহমান – নামের অর্থ – দয়াময়ের উদ্দেশ্য।
  • আজরা শার্মিলা – নামের অর্থ – কুমারী লজ্জাবতী।
  • আবদুল বাছেত – নামের অর্থ – বিস্তৃতকারীর গোলাম।
  • আবদুল দাইয়ান – নামের অর্থ – সুবিচারের দাস।
  • আবদুল ফাত্তাহ – নামের অর্থ – বিজয়কারীর গোলাম।
  • আবদুল গাফফার – নামের অর্থ – মহাক্ষমাশীলের গোলাম।
  • আবদুল গফুর – নামের অর্থ – ক্ষমাশীলের গোলাম।
  • আবদুল হাদী – নামের অর্থ – পথপ্রর্দশকের গোলাম।
  • আবদুল হাফিজ – নামের অর্থ – হিফাজতকারীর গোলাম।
  • আবদুল হাকীম – নামের অর্থ – মহাবিচারকের গোলাম।
  • আবদুল হালিম – নামের অর্থ – মহা ধৈর্যশীলের গোলাম।
  • আবদুল হামি – নামের অর্থ – রক্ষাকারী সেবক।
  • আবদুল হামিদ – নামের অর্থ – মহা প্রশংসাভাজনের গোলাম।
  • আবদুল হক – নামের অর্থ – মহাসত্যের গোলাম।
  • আবদুল হাসিব – নামের অর্থ – হিসাব গ্রহনকারীর গোলাম।
  • আবদুল জাব্বার – নামের অর্থ – মহাশক্তিশালীর গোলাম।
  • আবদুল জলিল – নামের অর্থ – মহাপ্রতাপশালীর গোলাম।
  • আবদুল কাহহার – নামের অর্থ – পরাত্রুমশীলের গোলাম।
  • আবদুল কারীম – নামের অর্থ – দানকর্তার গোলাম।
  • আবদুল খালেক – নামের অর্থ – সৃষ্টিকর্তার গোলাম।
  • আবদুল লতিফ – নামের অর্থ – মেহেরবানের গোলাম।
  • আবদুল মাজিদ – নামের অর্থ – বুযুর্গের গোলাম।
  • আবদুল মুবীন – নামের অর্থ – প্রকাশের দাস।
  • আবদুল মোহাইমেন – নামের অর্থ – মহাপ্রহরীর গোলাম।
  • আবদুল মুহীত – নামের অর্থ – বেষ্টনকারী গোলাম।
  • আবদুল মুজিব – নামের অর্থ – কবুলকারীর গোলাম।
  • আবদুল মুতী – নামের অর্থ – মহাদাতার গোলাম।
  • আহমার – নামের অর্থ – অধিক লাল।
  • আহমার আজবাব – নামের অর্থ – লাল পাহাড়।
  • আহমার আখতার – নামের অর্থ – লাল তারা।
  • আহনাফ – নামের অর্থ – ধর্মবিশ্বাসে অতিখাঁটি।
  • আহনাফ আবিদ – নামের অর্থ – ধর্মবিশ্বাসী ইবাদতকারী।
  • আহনাফ আবরার – নামের অর্থ – অতিপ্রশংসনীয় ন্যায়বান।
  • আহনাফ আদিল – নামের অর্থ – ধর্মবিশ্বাসী ন্যায়পরায়ন।
  • আহনাফ আহমাদ – নামের অর্থ – ধার্মিক অতি প্রশংসনীয়।
  • আবরার রইস – নামের অর্থ – ন্যায়বান ভদ্রব্যক্তি।
  • আবরার শাহরিয়ার – নামের অর্থ – ন্যায়বান রাজা।
  • আবরার শাকিল – নামের অর্থ – ন্যায়বান সুপুরুষ।
  • আবরার তাজওয়ার – নামের অর্থ – ন্যায়বান রাজা।
  • আবরার ওয়াদুদ – নামের অর্থ – ন্যায়পরায়ন বন্ধু।
  • আবরার ইয়াসির – নামের অর্থ – ন্যায়বান ধনী।
  • আবসার – নামের অর্থ – দৃষ্টি।
  • আবতাহী – নামের অর্থ – নবী-(স:)-এর উপাধি।
  • আবুল হাসান – নামের অর্থ – সুন্দরের কল্যাণ।
  • আবইয়াজ আজবাব – নামের অর্থ – সাদা পাহাড়।
  • আহনাফ আকিফ – নামের অর্থ – ধর্মবিশ্বাসী উপাসক।
  • আহনাফ আমের – নামের অর্থ – ধর্মবিশ্বাসী শাসক।
  • আহনাফ আনসার – নামের অর্থ – ধর্মবিশ্বাসী সাহায্যকারী।

আমাদের শেষ কথা

ফেরদাউস অ্যাকাডেমির আজকের এই পোস্টে আপনাদের সাথে আয়াস নামের অর্থ কি এবং আয়াস নামের ইসলামিক অর্থ কি তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেছি। এছাড়াও, আ দিয়ে ছেলেদের ইসলামিক নাম অর্থসহ একটি তালিকা উল্লেখ করে দিয়েছি। এই তালিকা থেকে আপনার সন্তানের জন্য নাম বাছাই করে নিয়ে উক্ত নাম দিয়ে আকিকা করতে পারেন। ইসলামিক নাম অর্থসহ পেতে আমাদের ওয়েবসাইটের অন্যান্য পোস্টগুলো পড়তে পারেন।

Leave a Comment